চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল

Spread the love

চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল- চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে। তাদের চরিত্রে বেকারের সীলমোহর লেগে যায়। তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে যায়। ব্যক্তিত্ব বা মূল্যায়ন বলতে তাদের কিছুই থাকে না। এরকম চিত্র আমাদের দেশের প্রায় ঘরে ঘরেই দেখা যায়।

চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল-

ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার পূর্বে আমাদের মনে অনেক স্বপ্ন থাকে। স্বপ্ন দেখি চাকরিটা আমারই হবে। চাকরিটা যদি আমার হয় তবে চাকরির বেতন দিয়ে এই করবো সেই করবো কত ধরণের স্বপ্ন যে আমরা দেখে থাকি। কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার পর স্বপ্ন পূরণ হওয়ার পূর্বেই আমাদের সকল স্বপ্নের মৃত্যু হয়ে যায়। ইন্টারভিউ সম্পন্ন হওয়ার পর প্রশ্নকারীরা প্রায় সকলকেই একটি কমন কথা বলে থাকেন- ঠিক আছে আপনি আসুন পরবর্তীতে আপনাকে জানানো হবে। ইন্টারভিউ বোর্ডে যাদেরকে এ কথা বলা হয় তাদের বেশীরভাগই চাকরি হয়না। আর যাকে চাকরিতে নেওয়া হবে তাকে এ ধরণের কথা বলা হয়না। তাদেরকে সাধারণত বলা হয় ঠিক আছে এখন বলুন আপনি আমাদের কোম্পানীতে কবে থেকে জয়েন করছেন অথবা বেতন নিয়ে গুরুত্ব সহকারে আলোচনা করেন ইত্যাদি।

চাকরির ইন্টারভিউ টিপস | ইন্টারভিউ প্রস্তুতি

ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।

আজ আমরা চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করবো। প্রথমে আমরা ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সংক্ষিপ্তভাবে জেনে নেই।

ক) ইন্টারভিউ এর পূর্বে প্রস্তুতি গ্রহণ করা।
খ) চাকরির ইন্টারভিউ এর প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে স্টাডি করা।
গ) মনোযোগ সহকারে প্রশ্ন শোনা।
ঘ) স্পষ্ট ও সহজভাবে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করা।
ঙ) আত্মবিশ্বাস নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দেওয়া।
চ) চ্যালেঞ্জ বা তর্ক না করা।
ছ) রাগান্বিত বা বিরক্ত না হওয়া।
জ) শুদ্ধ ভাষা ব্যবহার করা।
ঝ) ঘাবড়ানো বা নার্ভাস না হওয়া।
ঞ) ভদ্রতা বজায় রাখা।
ট) পূর্বের কোম্পানী সম্পর্কে নেতিবাচক কিছু না বলা।
ঠ) বদ অভ্যাস ত্যাগ করা।
ড) প্রয়োজনে উপস্থিত বুদ্ধি ব্যবহার করা।
ঢ) সবজান্তা মনোভাব বর্জন করা।
ণ) হাসি-খুশি ও উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা করা।

চাকরির ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের পূর্বে করণীয় কি?

১। ইন্টারভিউ এর প্রস্তুতি গ্রহণ করা-

ক) যে পদে চাকুরীর জন্য ইন্টারভিউ দিবেন সে অনুযায়ী প্রফেশনাল সিভি তৈরী করতে হবে।
খ) বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত কাগজপত্র যেমন- সিভি, শিক্ষাগত যোগ্যতা সনদ, অভিজ্ঞতা সনদ, প্রশিক্ষণ সনদ (যদি থাকে), জাতীয় পরিচয়পত্র, সম্প্রতি তোলা ফটোগ্রাফ সহ আনুসাঙ্গিক কাগজপত্র সাথে নিয়ে যেতে হবে।
গ) ফরমাল/মার্জিত পোশাক পড়তে হবে।
ঘ) হাতে পায়ের নখ, চুল ইত্যাদি ছোট করতে হবে।
ঙ) দাঁত পরিস্কার করতে হবে। মুখে ও শরীরে দুর্গন্ধ থাকলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। অর্থাৎ মাউথ ওয়াশ এবং পারফিউম ব্যবহার করতে হবে। এক কথায় পরিপাটি হয়ে যেতে হবে।
ঝ) নির্ধারিত সময়ের মধ্যে উপস্থিত হতে হবে। ট্রাফিক জ্যাম বা অন্য কোন কারণ দেখিয়ে দেরী করা যাবে না।
ঞ) ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের সময় ইন্টারভিউ গ্রহণকারীদের সঙ্গে সালাম বিনিময় করে অনুমতি নিয়ে প্রবেশ করতে হবে।
ট) ইন্টারভিউ রুমে প্রবেশের পূর্বে আপনার মোবাইল ফোনটি সাইলেন্ট অথবা বন্ধ করুন।

২) চাকরির ইন্টারভিউ এর প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে স্টাডি করা-

চাকরির জন্য ইন্টারভিউ বোর্ডে কি ধরণের প্রশ্ন করা হবে তা একান্তই নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের উপর নির্ভর করে। তবে চাকরির জন্য প্রায় প্রতিটি ইন্টারভিউতেই কমন কিছু প্রশ্ন করা হয়। যে প্রশ্নগুলোর উত্তর জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রশ্নের উত্তর দিতে সহজ হয়।

এজন্য ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার পূর্বে এ সম্পর্কে স্টাডি করে যাওয়া উচিত।

চাকরির ইন্টারভিউ এর প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে আমাদের একটি আর্টিকেল রয়েছে। আপনারা চাইলে আর্টিকেলটি পড়ে আসতে পারেন।

ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের পরে করণীয় কি | চাকরির ইন্টারভিউ টিপস-

ক) মনোযোগ সহকারে প্রশ্ন শুনুন-

ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রথমে মনোযোগ সহকারে প্রশ্নকারীদের প্রশ্ন শুনবেন। তাদেরকে কোন প্রশ্ন রিপিট করাবেন না অর্থাৎ একই প্রশ্ন তাদেরকে যেন দুই বার জিজ্ঞাসা করতে না হয়। তাদের প্রশ্ন শেষ হওয়ার আগেই কোন উত্তর দিবেন না।

যদি কোন কারণে প্রশ্ন বুঝতে বা শুনতে না পারেন তবে বিনয়ের সাথে পুনরায় জিজ্ঞাসা করুন।

যাই হোক সম্পূর্ণ প্রশ্ন মনোযোগ সহকারে শুনবেন তারপর চিন্তা-ভাবনা করে উত্তর দিবেন।

তবে চিন্তা-ভাবনার জন্য বেশী সময় নেওয়া উচিত নয়।

খ) স্পষ্ট ও সহজভাবে উত্তর দিন | চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল

প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর স্পষ্ট ও সহজভাবে দেওয়ার চেষ্টা করতে হবে। ঘুরিয়ে পেচিয়ে বা আমতা আমতা করে কোন প্রশ্নের উত্তর দেওয়া যাবে না। উত্তর দেওয়ার মাঝে স্মার্টনেস থাকতে হবে।

গ) চ্যালেঞ্জ বা তর্ক পরিহার করুন | চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল-

কোন অবস্থাতেই প্রশ্নকারীদের সঙ্গে চ্যালেঞ্জ বা তর্কে জড়ানো যাবে না। যদি এমন হয়, তারা আপনাকে একটি প্রশ্ন করেছে, আপনি তার সঠিক উত্তর দিয়েছেন, কিন্তু তারা আপনার উত্তরকে ভুল ব্যাখ্যা দিচ্ছেন, তাহলে আপনি স্মার্টলী আপনার উত্তর সঠিক হওয়ার দু’একটি পয়েন্ট তুলে ধরুন। কেননা অনেক সময় তারা ইচ্ছা করে ভুল ব্যাখা দিয়ে আপনাকে বিভ্রান্তিতে ফেলে দেখতে চান আপনি এটাকে কিভাবে সমাধান করেন। কিন্তু আপনি যদি বুঝতে পারেন যে তারা কথাটি সিরিয়াসলি বলেছেন তবে কৌশলে তা এড়িয়ে যান। কোন অবস্থাতেই তাদের সঙ্গে তর্কে জড়াবেন না।

ঘ) রাগান্বিত বা বিরক্ত হওয়া যাবে না-

অনেক সময় প্রশ্নকারীগণ চাকরি প্রার্থীকে পরীক্ষা করে দেখার জন্য কিছু বিরক্তিকর বা রাগান্বিত হওয়ার মতো প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে থাকেন। আবার অনেকে ব্যক্তিগত বা কটাক্ষ করে কিছু প্রশ্ন করে থাকেন। এ ধরণের প্রশ্ন করে তারা দেখতে চান আপনি নিজেকে কিভাবে কন্ট্রোল করেন বা সংযত রাখেন। অথবা তারা দেখতে চান যে আপনি এই প্রশ্নের কোন ইতিবাচক উত্তর দিতে পারেন কিনা।

এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে সংযত হতে হবে। কেননা সংযম আপনার ব্যক্তিত্বকে প্রকাশ করবে।

ঙ) প্রাঞ্জল বা শুদ্ধ ভাষা ব্যবহার করুন | চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল-

ইন্টারভিউ বোর্ডে কথা বলার সময় অবশ্যই প্রাঞ্জল ও শুদ্ধ ভাষা ব্যবহার করুন। কোন অবস্থাতেই আঞ্চলিক ভাষা ব্যবহার করবেন না। কেননা আঞ্চলিক ভাষা ব্যবহারে অনেক সমস্যা রয়েছে। যেমন-

১. আঞ্চলিক ভাষায় কথা বললে অনেক কথা বুঝা যায় না। কেননা একেক এলাকার আঞ্চলিক ভাষা একেক রকম। আমরা যারা ঢাকার বাসিন্দা তারা সিলেট, চট্টগ্রাম এবং নোয়াখালীর আঞ্চলিক অনেক কথা বুঝতে পারব না।
২. শুদ্ধ ভাষায় কথা বললে কথা যেমন বুঝতে সুবিধা হয় আবার স্মার্টনেসও বেড়ে যায়।
৩. আঞ্চলিক ভাষা না বুঝার কারণে প্রশ্নকারীকে একই প্রশ্ন বার বার করতে হয়। যা বিরক্তির কারণ হতে পারে।

এজন্য ইন্টারভিউ বোর্ডে কথা বলার সময় আঞ্চলিক ভাষা সম্পূর্ণভাবে বর্জন করুন, শুদ্ধ ও প্রাঞ্জল ভাষায় কথা বলুন।

চ) মার্জিত বা ভদ্র আচরণ করতে হবে-

ইন্টারভিউ এর সময় এমন কোন আচরণ করা যাবে না যেটা দেখে বুঝা যায় আপনি অশালীন ও অভদ্র। ভদ্র ও মার্জিত আচরণ করতে হবে। কথা বলার সময় স্বর ও নম্রতা বজায় রাখুন।

অন্যথায় তারা আপনার সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা পোষণ করবেন এবং ন্যাগেটিভ সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

ছ) বদ অভ্যাস বা মুদ্রা দোষ পরিহার করুন | চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল

আমাদের অনেকের কিছু বদ অভ্যাস রয়েছে। যা ইন্টারভিউ এর সময় পরিহার করতে হবে। যেমন-

১. দাঁত দিয়ে নখ কাটা
২. দুই পা ঝাঁকানো
৩. কথা বলার সময় চোখ নিচু করে কথা বলা এবং উচ্চ স্বরে কথা বলা।
৪. জড়ো সড়ো হয়ে বসা।
৫. একই কথা বার বার বলা।
৬. হাত-পা ও মাথা চুলকানো।
৭. প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় তাড়াহুড়া করা।

এ বদ অভ্যাসগুলো ইন্টারভিউ বোর্ডে একেবারে পরিহার করতে হবে। কথা বলার সময় অবশ্যই প্রশ্নকারীদের চোখে চোখ রেখে কথা বলার চেষ্টা করা। কাঁধ ও মাথা উঁচু করে তাদের সামনে স্মার্টলী বসতে হবে।

জ) ঘাবড়ানো বা নার্ভাস হওয়া যাবে না-

পরীক্ষা মানেই অনেকেই নার্ভাস হয়ে যায়। আর ইন্টারভিউ হলে তো কথাই নেই। প্রশ্নকারীরা আপনার মতোই মানুষ। তাদের দেখে নার্ভাস হওয়া বা ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আপনাকে যা যা জিজ্ঞাসা করা হবে তার সঠিক এবং সদুত্তর দিন। যদি কোন প্রশ্নের উত্তর না জানা থাকে তাহলে অকপটে স্বীকার করুন। একটি কথা মনে মনে ভাবতে থাকুন এ চাকরিটা না হলে আমার খুব বেশী ক্ষতি হবে না। তাহলে দেখবেন আপনার নার্ভাস ভাবটা কেটে গেছে।

কিন্তু আপনি যদি চাকরি না হওয়ার ভয় করেন তবে আপনি তাদের সামনে নির্ভয়ে কথা বলতে পারবেন না।

ঝ) উপস্থিত বুদ্ধি ব্যবহার করুন | চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল

ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত সময় পাওয়া যায় না। অল্প সময়ের মধ্যে বিচক্ষণতার সাথে প্রশ্নগুলোর উত্তর দিতে হয়। অনেক সময় কিছু কিছু প্রশ্নের উত্তর জানা থাকে না। যেগুলোর উত্তর উপস্থিত বুদ্ধিমত্তাকে কাজে লাগিয়ে দিতে হয়।

আপনি আপনার উপস্থিত বুদ্ধিকে যতো বেশী কাজে লাগাবেন তারা আপনার প্রতি ততো বেশী Impressed বা প্রভাবিত হবেন।

ঞ) সবজান্তা মনোভাব বর্জন করুন-

স্মার্ট হওয়া ভালো কিন্তু ওভার স্মার্ট একেবারেই ভালো নয়। কিছু মানুষ এমন আছেন যারা নিজেকে সবজান্তা মনে করেন। প্রশ্নের উত্তর জানা থাকুক আর নাই থাকুক এমন একটা ভাব করেন যেন উনি সবজান্তা। ইন্টারভিউ বোর্ডে সবজান্তা মনোভাব বর্জন করতে হবে। কেননা সবজান্তারা ওভার স্মার্ট হতে গিয়ে বেশিরভাগ প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে পারেন না। আরে ভাই একজনের পক্ষে সবকিছু জানা যে সম্ভব হবে এমন তো কথা নেই। যে প্রশ্নের উত্তর জানা আছে তা সঠিকভাবে দেওয়ার চেষ্টা করুন।

আর জানা না থাকলে অকপটে স্বীকার করে বলুন এ প্রশ্নের উত্তর আমার জানা নাই।

ট) হাসি-খুশি ও উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা করুন | চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল-

ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় হাসি-খুশি ও উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা করুন। গম্ভীর হয়ে কোন প্রশ্নের উত্তর দিবেন না। হাসি-খুশি মানুষকে সকলেই পছন্দ করেন। তবে অট্টহাসি পরিহার করুন। এছাড়া হাসির কোন প্রসঙ্গই নেই অথচ আপনি হাসছেন এতে আপনার ব্যক্তিত্ব নষ্ট হয়ে যাবে।

ইন্টারভিউ বোর্ডে হাসাহাসি করা যাবে না। জাস্ট হাসি মাখা মুখে এবং মনে মনে উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা করবেন।

ঠ) আত্মবিশ্বাস রাখুন-

চাকরি আপনার হবেই এই আত্মবিশ্বাস নিয়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন। তাহলে দেখবেন ভয়, জড়তা কিছুই থাকবে না। এতে প্রশ্নের উত্তরগুলো দিতে আপনার জন্য সহজ হবে।

ড) পূর্বের কোম্পানী সম্পর্কে নেতিবাচক কিছু না বলা | চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল

আপনাকে প্রশ্ন করা হতে পারে যে আপনি পূর্বের চাকরি ছেড়ে এখানে কেন আসতে চাইছেন। এ প্রশ্নের উত্তরে পূর্বের কোম্পানী সম্পর্কে কোন অবস্থাতেই নেতিবাচক কিছু বলা যাবে না। কেননা পূর্বের কোম্পানী সম্পর্কে ন্যাগেটিভ কিছু বললে তারাও আপনার সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা করতে পারেন। তারা হয়তো মনে করতে পারেন আপনি যখন এই কোম্পানী ছেড়ে অন্য কোন কোম্পানীতে চলে যাবেন সেখানে গিয়ে তাদের কোম্পানী সম্পর্কেও আপনি ন্যাগেটিভ কথা বলবেন।

এখন বলুন আপনার সম্পর্কে যদি তাদের এরূপ ধারণা হয় তাহলে কি তারা আপনাকে নিয়োগ প্রদান করবে?

শেষকথা- চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

342 thoughts on “চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল”

  1. কনটেন্টে বর্ণিত কৌশল গুলো জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যাবে।সবার জানা উচিত।

    Reply
  2. লেখক কে ধন্যবাদ জানাই এত সুন্দর করে সহজ ভাষায় চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য সঠিক গাইড লাইন তুলে ধরা র জন্য ।

    Reply
  3. চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ ইন্টারভিউ। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় বিষন্ন হয়ে যায় যার কারনে চাকরি হওয়ার থাকলে হয় না। এ কান্ট্রিতে লেখক সুন্দর করে বুঝিয়ে দিয়েছেন চাকরির ইন্টারভিউ সহজ কৌশল আর্টিকেল।

    Reply
    • চাকরি করতে চাইলে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতেই হবে। এই ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে যা অবলম্বন করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এই আর্টিকেলটি পড়লে আমরা এই কৌশলগুলো সম্পর্কে জানতে পারবো।

      Reply
  4. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলোর উপর চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে নির্ভর করে। তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। এই আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানা যাবে

    Reply
  5. লেখকে অসংখ্য অগণিত ধন্যবাদ। তিনি এখানে চাকুরীর ইন্টার্ভিউ কিভাবে নিতে হয় সেটার খুবই খুবই গুরুত্তপূর্ণ বেশ কয়েকটি পয়েন্ট তুলে ধরেছেন। প্রস্তুতি, দাত মুখ পরিষ্কার, রাগ না করা সহ অনেক বিষয় তুলে ধরেছেন। আসলে আমাদের জন্য সেগুলো খুবই দরকারি।

    Reply
  6. ইন্টারভিউ বোর্ডে ব্যর্থতায় বাড়ছে বেকারত্ব। এই কনটেন্টটিতে চাকরির ইন্টারভিউর কৌশল সম্পর্কে ভালোভাবে তুলে ধরা হয়েছে। কৌশল গুলো অবলম্বন করলে হতাশা কে পিছনে ফেলে একটি চাকর্টিপাওয়ার স্বপ্ন পূরণ হবেই ইংশা আল্লাহ।

    Reply
  7. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলো লেখক ধাপে ধাপে সুন্দর করে বর্ণনা করেছেন। যা সবার উপকারে আসবে।লেখককে ধন্যবাদ।

    Reply
  8. চাকরি পাওয়ার জন্য ইন্টারভিউ দিতে হয়। ইন্টারভিউ দেয়ার কিছু কৌশল রয়েছে, যেগুলো জানা না থাকার কারনে অনেকেই চাকরি পেতে ব্যর্থ হয়। ফলে তার জীবনে নেমে আসে হতাশা। কনটেন্টটিতে চাকরির ইন্টারভিউ এর কৌশল গুলো আলোচনা করা হয়েছে, যা চাকরির ইন্টারভিউতে সফল হওয়ার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  9. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। এমন অনেককেই দেখা যায় ,বারবার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি নামের সোনার হরিণটির দেখা পায় না। তখন তারা হতাশ হয়ে জীবন থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়। কিন্তু তারা জানে না ইন্টারভিউ দেওয়ার ও কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়েই যায়। তাই আমাদের প্রথমে ইন্টারভিউ দেওয়ার এই সুন্দর কৌশল গুলো জানতে হবে। উপরে উল্লেখিত কন্টেনটিতে এই বিষয়টি খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আমার মতে চাকুরী সন্ধানী প্রত্যেকের এই বিষয়গুলো সুন্দরভাবে জানা প্রয়োজন।

    Reply
    • চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলো লেখক ধাপে ধাপে সুন্দর করে বর্ণনা করেছেন। যারা নতুন চাকুরীর ইন্টারভিউ দিতে চাচ্ছে এই কনটেন্ট পড়ে তাদের খুব উপকার হবে। ধন্যবাদ লেখক কে এত সুন্দর কনটেন্ট লেখার জন্য।

      Reply
  10. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় বিষন্ন হয়ে যায় যার কারনে চাকরি হওয়ার থাকলে হয় না। ইন্টারভিউ দেওয়ার ও কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়েই যায়।
    তাই আমাদের প্রথমে ইন্টারভিউ দেওয়ার এই সুন্দর কৌশল গুলো জানতে হবে।কনটেন্টটিতে চাকরির ইন্টারভিউ এর কৌশল গুলো আলোচনা করা হয়েছে, যা চাকরির ইন্টারভিউতে সফল হওয়ার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  11. বর্তমানে কম বেশি প্রতিটি চাকরির জন্য ভালো সার্টিফিকেট থাকার পাশাপাশি ইন্টারভিউ দিতে হয়। ইন্টারভিউ এর উপর ভিত্তি করে চাকরি হওয়া না হওয়া নির্ভর করে।তবে ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। কিন্তু উক্ত কন্টেন্টের কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।

    Reply
  12. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তাই আমাদের ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

    মা শা আল্লাহ, অনেক সুন্দর একটি কনটেন্ট। ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো এতটা সুন্দর, সাবলীল ও সহজ ভাষায় আমাদেরকে অবহিত করানোর জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  13. ইন্টারভিউ চাকরির ক্ষেত্রে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।ইন্টারভিউ তে ভাল করার জন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়,তাহলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে যায়।এই কনটেন্ট টা ইন্টারভিউ এর কৌশল গুলো আলোচনা করা হয়েছে।

    Reply
  14. এমন কন্টেন্ট আমার অনেক প্রয়োজন ছিলো।অনেক ধন্যবাদ জানাই লেখককে।

    Reply
  15. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া, চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনোকটাই বেড়ে যায়। লেখক এই কনটেন্টটিতে চাকরির কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন।

    Reply
  16. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া, চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। লেখক এই কনটেন্টটিতে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন।

    Reply
  17. এমন তথ্যবহুল একটি কন্টেন্ট চাকরি প্রার্থীদের জন্য অত্যন্ত সহায়ক হবে বলে মনে করছি।
    চাকরি প্রার্থীদের একনজর চোখ বুলানোর অনুরোধ করছি।

    Reply
  18. চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ ইন্টারভিউ।ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়।ধন্যবাদ এই বিষয়গুলো সুন্দরভাবে আলোচনা করার জন্য।

    Reply
  19. ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার পূর্বে আমাদের মনে অনেক স্বপ্ন থাকে। স্বপ্ন দেখি চাকরিটা আমারই হবে। চাকরিটা যদি আমার হয় তবে চাকরির বেতন দিয়ে এই করবো সেই করবো কত ধরণের স্বপ্ন যে আমরা দেখে থাকি। কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার পর স্বপ্ন পূরণ হওয়ার পূর্বেই আমাদের সকল স্বপ্নের মৃত্যু হয়ে যায়। ইন্টারভিউ সম্পন্ন হওয়ার পর প্রশ্নকারীরা প্রায় সকলকেই একটি কমন কথা বলে থাকেন- ঠিক আছে আপনি আসুন পরবর্তীতে আপনাকে জানানো হবে। ইন্টারভিউ বোর্ডে যাদেরকে এ কথা বলা হয় তাদের বেশীরভাগই চাকরি হয়না। আর যাকে চাকরিতে নেওয়া হবে তাকে এ ধরণের কথা বলা হয়না। তাদেরকে সাধারণত বলা হয় ঠিক আছে এখন বলুন আপনি আমাদের কোম্পানীতে কবে থেকে জয়েন করছেন অথবা বেতন নিয়ে গুরুত্ব সহকারে আলোচনা করেন ইত্যাদি।

    Reply
  20. চাকুরী পেতে হলে সর্বপ্রথম ধাপ আবেদন করা, তারপর ইন্টারভিউ ফেস করা। এই ইন্টারভিউ তে অধিকাংশ লোক বাদ যায় শুধুমাত্র নিয়ম কানুন, আচরণ না জানার জন্য। ইন্টারভিউ তে সঠিক উত্তর দেয়ার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো ম্যানার, কতটুকু বলতে হবে, কতটুকু বলা যাবেনা, কোন সিচুয়েশনে কিভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে কি করতে হবে এসব জানা। আবার কিছু প্রশ্নের উত্তর ডিপ্লোম্যাটিক্যালি দেয়া। এগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ ফেস করা যেমন সহজ হয়, তেমনি বাছাই হওয়ার ক্ষেত্রেও এগিয়ে থাকা যায়। খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলো তুলে ধরার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ, কেউ চাইলে এখান থেকে গাইডলাইন নিয়ে নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন।

    Reply
  21. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। এখানে সেই কৌশলগুলি বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরার জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  22. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। ধন্যবাদ লেখককে সুন্দর করে লেখার জন্য।

    Reply
  23. চাকরির ইন্টারভিউয়ের প্রস্তুতিতে নিজেকে কার্যকরভাবে উপস্থাপন করতে এবং একটি শক্তিশালী অভিব‍্যক্তি তৈরি করা নিশ্চিত করার জন্য বেশ কয়েকটি মূল কৌশল জড়িত। যা আমাকে উপরোক্ত আর্টিকেলের মাধ্যমে শিখতে সহায়তা করেছে।এমন একটি গুরুত্বপূর্ন আর্টিকেল ভালভাবে পড়লে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবে যেকেউ। খুবই প্রয়োজনীয় একটি আর্টিকেল।

    Reply
  24. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। এর অন্যথা খুবই কম। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। আর এই আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারব।

    Reply
  25. চাকরি খোজার সময় আমরা অনেকেই বিভিন্ন ভুল করে থাকি শাধু মাত্র কিছু বুদ্ধি টা কলাকৌশল না জানার কারনে বা কৌশল ব্যবহার না করায়। তবে এই কন্টেন্টটি পড়ে খুবই ভালোভাবে জানতে পেরেছি ও বুঝতে পারছি। কন্টেন্টটি খুবই উপকারী ছিলো। ধন্যবাদ লেখক কে।

    Reply
  26. এই কনটেন্টে খুব সুন্দর করে চাকরির ইন্টারভিউ এর সকল খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। নতুন চাকরি প্রত্যাশিত সকল ক্যান্ডিডেট এর জন্য কন্টেন্ট টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ধন্যবাদ লেখককে এতো সুন্দর একটি কন্টেন্ট লেখার জন্য।

    Reply
  27. আমাদের দেশে এ রকম বেকারের সংখ্যা অনেক যাদের ইন্টারভিউ দিতে দিতে বলতে গেলে জুতার তলা ক্ষয় হয়ে যায় তবু চাকরি নামক সোনার হরিণটার দেখা মেলেনা । কনটেন্ট টি তে খুব সুন্দর করে বলা হয়েছে ইন্টার ভিউ এর পূর্ব প্রস্ততি সম্পর্কে যেটা চাকরি প্রার্থীদের অনেক উপকারে আসবে ।

    Reply
  28. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় বিষন্ন হয়ে যায় যার কারনে চাকরি হওয়ার থাকলে হয় না। ইন্টারভিউ দেওয়ার ও কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।ইন্টারভিউ তে সঠিক উত্তর দেয়ার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো ম্যানার, কতটুকু বলতে হবে, কতটুকু বলা যাবেনা, কোন সিচুয়েশনে কিভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে কি করতে হবে এসব জানা। আবার কিছু প্রশ্নের উত্তর ডিপ্লোম্যাটিক্যালি দেয়া। এগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ ফেস করা যেমন সহজ হয়, তেমনি বাছাই হওয়ার ক্ষেত্রেও এগিয়ে থাকা যায়। খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলো তুলে ধরার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ, কেউ চাইলে এখান থেকে গাইডলাইন নিয়ে নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন।

    Reply
  29. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমন কোনো নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে, এগুলো অনুসরণ করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।
    গুরুত্বপূর্ণ একটা কনটেন্ট।

    Reply
  30. চাকরি পেতে হলে ভাল ইন্টারভিউ দিতে হবে। অনেকেই চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার নিয়ম কারণগুলো না জানার কারণে অনেক ভুল করে ফেলেন। ফলে মেধা থাকা শর্তেও প্রত্যাশিত চাকরিটি আর পাওয়া হয়ে ওঠে না। ধন্যবাদ লেখক কে চমৎকার এই কনটেন্ট টি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  31. চাকরির জন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।ইন্টারভিউ তে সঠিক উত্তর দেয়ার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো ম্যানার, কতটুকু বলতে হবে, কতটুকু বলা যাবেনা, কোন সিচুয়েশনে কিভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে কি করতে হবে এসব জানা। আবার কিছু প্রশ্নের উত্তর ডিপ্লোম্যাটিক্যালি দেয়া। এগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ ফেস করা যেমন সহজ হয়, তেমনি বাছাই হওয়ার ক্ষেত্রেও এগিয়ে থাকা যায়।এই আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  32. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অবলম্বন করলে চাকরি হওয়ার সম্ভবনা অনেকটা বেড়ে যায়। এই কন্টেন্টে খুব সুন্দর করে চাকরির ইন্টারভিউ এর সকল খুটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। নতুন চাকরি প্রত্যাশিত সকল ক্যান্ডিডেট এর জন্য কন্টেন্ট টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এতো সুন্দর একটি কন্টেন্ট লেখার জন্য।

    Reply
  33. চাকরির একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ ভালো হলেই কেবল চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ইন্টারভিউ সম্পর্কে ভালো ধারণা পেতে উক্ত কন্টেন্টটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে ইন শা আল্লাহ্। এতে অনেকে উপকৃত হবে।

    Reply
  34. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলোর উপর চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে নির্ভর করে। তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। এই আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানা যাবে

    Reply
  35. চাকরি খোজার সময় আমরা অনেকেই বিভিন্ন ভুল করে থাকি শাধু মাত্র কিছু বুদ্ধি টা কলাকৌশল না জানার কারনে বা কৌশল ব্যবহার না করায়। তবে এই কন্টেন্টটি পড়ে খুবই ভালোভাবে জানতে পেরেছি ও বুঝতে পারছি। কন্টেন্টটি খুবই উপকারী ছিলো। ধন্যবাদ

    Reply
  36. একটি চাকরি পেতে হলে যে কোন মানুষকে অবশ্যই ইন্টারভিউ দিতে হবে। আর সুন্দরভাবে ইন্টারভিউ দিতে হলে শারীরিক এবং মানসিক নানান ধরনের প্রস্তুতি প্রয়োজন আছে। এই কন্টেন্টে বিষয়গুলো বিস্তারিত ভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। যা অনুসরণ করে ইন্টারভিউ দিতে গেলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। তাই যারা চাকরিপ্রার্থী, তাদের মনোযোগ দিয়ে এই কন্টেন্ট টি পড়তে হবে।

    Reply
    • বর্তমানে সামাজিক পরিবেশে বিভিন্ন দিক বিবেচনা করে সমাজের নূন্যতম একটি বাহু প্রচলিত শব্দ হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ একটা যুদ্ধক্ষেত্রের মতো। এখানে প্রথমেই নিজের সম্পর্কে খুব ভালো ধারণা দিতে হবে।তাই ইন্টারটারভিউ দক্ষতা বাড়াতে কিছু কৌশল গ্রহণ করুন। ইন্টারভিউ এর দিনটি আপনার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দিন গুলির মধ্যে একটি।চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়।ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার পূর্বে আমাদের মনে অনেক স্বপ্ন থাকে। কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার পর স্বপ্ন পূরণ হওয়ার পূর্বেই আমাদের সকল স্বপ্নের মৃত্যু হয়ে যায়। তাই একজন চাকরিপ্রার্থীর প্রথম কাজ হলো প্রতিষ্ঠানটিকে নিয়ে হোমওয়ার্ক করা।ইন্টারভিউয়ের সময় প্রত্যেক নিয়োগকর্তাই তার প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করে থাকেন।তাই যেকোনো অবস্থায় প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে সম্যক ধারণা প্রদর্শন করা উচিত। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। চরম প্রতিযোগিতাপূর্ণ বর্তমান চাকরির বাজারে ইন্টারভিউতে ডাক পাওয়াই দুষ্কর। শত কষ্টের পর একটা ইন্টারভিউয়ের ডাক এলেই কাজ শেষ নয়।
      ইন্টারভিউ বোর্ডের ১০-১৫ মিনিট সময়ই নির্ধারণ করে দিতে পারে একজন চাকরিপ্রার্থীর বাকি জীবনকে। তাই এই ক্ষুদ্র সময়টুকু প্রত্যেকের জন্যই বেশ কঠিন। তবে কিছু বিষয়ে পূর্বপ্রস্তুতি এই জটিলতাকে কাটিয়ে উঠতে সহায়তা করতে পারে। ইন্টারভিউ বোর্ডে রিজিউমে ছাড়াও আরও কিছু নিয়ে যাওয়ার নির্দেশাবলী আছে কিনা তার জন্য বিজ্ঞপ্তি ভালো করে পড়ে নিতে হবে। ইন্টারভিউ চাকরির ক্ষেত্রে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।লেখক এই কনটেন্টটিতে চাকরির কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। মা শা আল্লাহ, অনেক সুন্দর একটি কনটেন্ট। ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো এতটা সুন্দর, সাবলীল ও সহজ ভাষায় আমাদেরকে অবহিত করানোর জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ। ধন্যবাদ লেখককে।

      Reply
  37. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে আপনার নিবন্ধটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও সহায়ক। ইন্টারভিউ কৌশল সম্পর্কে সচেতনতা এবং সঠিক প্রস্তুতি একজন প্রার্থীর সফলতার সম্ভাবনা অনেকাংশে বৃদ্ধি করতে পারে। নিবন্ধটির মাধ্যমে যারা বার বার ইন্টারভিউ দিয়ে চাকরি পাচ্ছেন না, তারা নতুন দৃষ্টিভঙ্গি ও কৌশল শিখতে পারবেন। আশা করছি, এই আর্টিকেলটি অনেকের জন্যই উপকারী হবে এবং তাদের ইন্টারভিউ প্রস্তুতিতে সহায়ক হবে।

    Reply
  38. ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। এই কন্টেন্টে খুব সুন্দর করে চাকরির ইন্টারভিউ এর সকল খুটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। নতুন চাকরি প্রত্যাশিত সকল ক্যান্ডিডেট এর জন্য কন্টেন্ট টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।লেখককে অনেক ধন্যবাদ কন্টেন্টটির জন্য।

    Reply
  39. লেখক খুব সুন্দরভাবে চাকরির ইন্টারভিউ নিয়ে লিখছেন।চাকরির বাজারে সঠিক কৌশল জানা না থাকলে আসলে চাকরি হওয়াটা কঠিন ব্যপার।প্রতিযোগিতা মূলক পরিস্থিতিতে উপরিউক্ত কনটেন্টটি আমাদের জন্য খুবই উপকারী।

    Reply
  40. চাকরির ইন্টারভিউ শুনলেই হাত পা ঠান্ডা হয়ে আসে।কি করব কি করব না হতভম্ব অবস্থা। এমন পরিস্থিতি কিভাবে সামাল দেওয়া যায় তারই কৌশল শেখানো হয়েছে এ কন্টেন্ট এ।ধন্যবাদ লেখক কে এতো সুন্দর করে বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য।

    Reply
  41. চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ অনেক গুরুত্বপূর্ণ। অনেকেই ইন্টারভিউ দিতে গেলে নার্ভাস হয়ে যাই ফলে তার নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস কমে যায়। যা চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রধান অন্তরায়। এই আর্টিকেলে লেখক অত্যন্ত সুন্দরভাবে ইন্টারভিউ দেওয়ার সকল কৌশল তুলে ধরেছেন।

    Reply
  42. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। এই আর্টিকলটিতে এই কৌশলগুলোই তুলে ধরা হয়েছে, যা চাকরিপ্রার্থীদের জন্য খুবই উপকারী হবে।

    Reply
  43. চাকরি পাওয়ার পূর্বে আমাদের লিখিত পরীক্ষা, ভাইবা ইন্টারভিউ দিতে হয়। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা ই বেড়ে যায়। লেখক এই কনটেন্ট টি তে চাকরির বিভিন্ন কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। আশা করছি চাকরি প্রার্থীদের জন্য কনটেন্ট টি উপকারী হবে।

    Reply
  44. সারাজীবন চাকরির ইন্টারভিউ নিয়ে মনে ভীতি কাজ করেছে। আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জানতে পারলাম। এখন কিছুটা হলেও মনে সাহস সঞ্চয় করতে পেরেছি চাকরির ইন্টারভিউ এর জন্য। ধন্যবাদ লেখককে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত বলার জন্য।

    Reply
  45. ✍️✍️চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। এমন অনেককেই দেখা যায় ,বারবার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি নামের সোনার হরিণটির দেখা পায় না। তখন তারা হতাশ হয়ে জীবন থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়।

    😍কিন্তু তারা জানে না ইন্টারভিউ দেওয়ার ও কিছু সুন্দর কৌশল আছে যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।
    👌👌আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়েই যায়। তাই আমাদের প্রথমে ইন্টারভিউ দেওয়ার এই সুন্দর কৌশল গুলো জানতে হবে। 🤞🖕উপরে উল্লেখিত কন্টেনটিতে এই বিষয়টি খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আমার মতে চাকুরী সন্ধানী প্রত্যেকের এই বিষয়গুলো সুন্দরভাবে জানা প্রয়োজন।

    Reply
  46. চাকরি আমাদের জীবন পরিবর্তন করে দেয়,আর এর বিপরীতে থাকে লাঞ্চনা, যন্ত্রনা,চাকরীর জন্য আমরা অনেক স্বপ্ন দেখি কিন্তু সেই চাকরীর ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া জানা না থাকলে জীবনে একটা চাকরীও হবে না যদিও বাকিটা তাকদীরের বিষয় হলেও!উপরের আর্টিকেলে একজন চাকরি পার্থিকে মেন্টালি ফিজিকালি ও স্মার্টলি প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে এ যেন চাকরির ইন্টারভিউ এর আগেই নিজেকে ট্রেনিং দেওয়া!শুকরিয়া লেখককে অনেককিছুই যা ইন্টারভিউ সম্পর্কে জানা দরকার তা তুলে ধরার জন্য
    🌺🌺

    Reply
  47. চাকরি পাওয়ার জন্য ইন্টারভিউ গুরুত্বপূর্ণ |ইন্টারভিউ প্রস্তুতির জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ ধাপ এবং টিপস রয়েছে যা আপনাকে সফল হতে সাহায্য করবে। ইন্টারভিউ কৌশল সম্পর্কে সচেতনতা এবং সঠিক প্রস্তুতি একজন প্রার্থীর সফলতার সম্ভাবনা অনেকাংশে বৃদ্ধি করতে পারে। লেখকের কৌশলগুলি অনুসরণ করে আপনি আপনার ইন্টারভিউ দক্ষতা উন্নত করতে পারবেন এবং চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি করতে পারবেন।

    Reply
  48. ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার পূর্বে আমাদের মনে অনেক স্বপ্ন থাকে। স্বপ্ন দেখি চাকরিটা আমারই হবে। চাকরিটা যদি আমার হয় তবে চাকরির বেতন দিয়ে এই করবো সেই করবো কত ধরণের স্বপ্ন যে আমরা দেখে থাকি। কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার পর স্বপ্ন পূরণ হওয়ার পূর্বেই আমাদের সকল স্বপ্নের মৃত্যু হয়ে যায়।
    ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে।লেখক তার কনটেন্ট এ বিষয়গুলো সুন্দর করে তুলে ধরেছেন, এই লেখা গুলো ভালো করে পরলে অনেক সহজ এবং অনেক বিষয়ে জানা যাবে। ধন্যবাদ লেখক কে উপকারী একটি কনটেন্ট লিখার জন্য।

    Reply
  49. আমাদের প্রায় সময়ই চাকরির জন্য ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা কিছু কৌশল জানা না থাকার কারণে বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে। যেকোনো চাকরির জন্য প্রধান বিষয় হলো ইন্টারভিউ ।ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  50. প্রত্যেকে অনেক স্বপ্ন নিয়ে চাকরির ইন্টারভিউ দিতে যায়। কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার সঠিক কৌশল না জানার কারণে অনেকেই ব্যর্থ হয়ে থাকে। ফলে তাদের জীবন দুর্বিসহ হয়ে পরে । তাই সকলেই সঠিকভাবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে জানা উচিত। এ আর্টিকেলটিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে হয়েছে তাই লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  51. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। আর ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। অসাধারণ কন্টেন্ট।

    Reply
  52. আপনার লেখা “চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল” কন্টেন্ট অত্যন্ত তথ্যবহুল এবং প্রাসঙ্গিক। ইন্টারভিউয়ের আগে প্রস্তুতি নেওয়া থেকে শুরু করে ইন্টারভিউ পরবর্তী ফলো-আপ পর্যন্ত প্রতিটি ধাপ খুবই সুন্দরভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। নতুন চাকরিপ্রার্থীদের জন্য এটি অবশ্যই একটি মূল্যবান গাইডলাইন হবে। ধন্যবাদ আপনার এই সুন্দর এবং সহায়ক কন্টেন্টের জন্য।

    Reply
  53. চাকরির জন্য আমাদের বিভিন্ন সময় ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়।অনেক স্বপ্ন নিয়ে আমরা ইন্টারভিউ দিতে যাই।অনেক সময় ভালো হয়,আবার অনেক সময় খারাপ হয় তখন আমাদের স্বপ্নগুলো ভেঙে যায় এবং হতাশগ্ৰস্থ হয়ে পরি। তবে ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার আগে কিছু পূর্ব প্রস্ততি ও কৌশল আছে সেগুলো জেনে নিজেকে প্রস্তুত করতে পারলে আমরা ইন্টারভিউতে সফলভাবে উত্তীর্ণ হতে পারবো। লেখক কন্টেনটি তে সুন্দর ভাবে ইন্টারভিউ সম্পর্কে তুলে ধরেছেন। যা পড়লে সকলের উপকার হবে। ইনশাআল্লাহ

    Reply
  54. আমাদের জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে, চাকরির ইন্টারভিউ। আমাদের চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে এই ইন্টারভিউয়ের উপর নির্ভরশীল। অতএব আমাদের ভালো একটা ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য এ সম্পর্কিত কিছু কৌশল আয়ত্ত করা উচিত। যেমন মনোযোগ সহকারে প্রশ্ন শোনা, শুদ্ধ ভাষায় উত্তর দেওয়া ,নার্ভাস না হওয়া, উপস্থিত বুদ্ধি ব্যবহার করে উৎফুল্ল ভাবে সকল প্রশ্নের উত্তর দেওয়া । সর্বোপরি নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস রাখতে হবে এবং মার্জিত আচরণ করতে হবে। তাহলে আমাদের চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যাবে।
    লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন একটি প্রয়োজনীয় কনটেন্ট আমাদের মাঝে উপস্থাপন করার জন্য।

    Reply
  55. মাশাআল্লাহ, অসাধারণ একটি কনটেন্ট পড়লাম।
    চাকরি মানে ইন্টারভিউ। বাস্তব জীবনে অনেকেই বারবার ইন্টারভিউ দেওয়ার পর ও চাকরি পায় না।ফলে একপর্যায়ে তারা হতাশায় ভোগে এবং নিজেদের লক্ষ্য থেকে পিছিয়ে যাই।কিন্তু আমরা অনেকেই চাকরির ইন্টারভিউ সম্পর্কিত বিভিন্ন কৌশল সম্পর্কে জানিনা বিধায় যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও চাকরির পরীক্ষায় পিছিয়ে যাই।সুতরাং বর্তমান প্রতিযোগিতা পূর্ণ চাকরির বাজারে টিকে থাকার জন্য আমাদের চাকরির ইন্টারভিউ সম্পর্কিত বিভিন্ন কৌশল আয়ত্ত করতে হবে। নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস রাখা এবং সুন্দর ও মার্জিত আচরণের মাধ্যমে উপস্থিত বুদ্ধির দ্বারা সকল প্রশ্নের দিতে হবে।
    এই কনটেন্ট টি পড়ার মাধ্যমে আপনারা সকলেই চাকরির ইন্টারভিউ সম্পর্কিত বিভিন্ন কৌশল জানতে পারবেন এবং ভবিষ্যতে উপকৃত হবেন,ইনশাআল্লাহ।

    Reply
  56. ইন্টারভিউ এর পূর্বে ভালো ভাবে প্রস্তুতি গ্রহণ করা। যেমন আপনি যদি চাকরি না হওয়ার ভয় করেন তবে আপনি তাদের সামনে নির্ভয়ে কথা বলতে পারবেন না।চাকরি আপনার হবেই এই আত্মবিশ্বাস নিয়ে প্রশ্নগুলোর উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন। তাহলে দেখবেন ভয়, জড়তা কিছুই থাকবে না। এতে প্রশ্নের উত্তরগুলো দিতে আপনার জন্য সহজ হবে। মনোযোগ সহকারে প্রশ্ন শোনা।স্পষ্ট ও সহজভাবে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করা আত্মবিশ্বাস নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দেওয়া।রাগাম্বিত বা বিরক্ত না হওয়া। শুদ্ধ ভাষা ব্যবহার করা।ঘাবড়ানো বা
    নার্ভাস না হওয়া। ভদ্রতা বজায় রাখা।
    পূর্বের কোম্পানী সম্পর্কে নেতিবাচক কিছু না বলা।বদ অভ্যাস ত্যাগ করা।প্রয়োজনে উপস্থিত বুদ্ধি ব্যবহার করা।সবজান্তা মনোভাব বর্জন করা।
    হাসি-খুশি ও উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা কর। ইন্টারভিউ সম্পর্কে অনেক কিছু জেনে ও ধারণা নিয়ে নিজের উপর আত্মবিশ্বাস জোগানোর মতো একটি সুন্দর কন্টেন্ট মাশাল্লাহ্। ধন্যবাদ লেখকে এতো সুন্দর ভাবে একটি কন্টেন্ট লিখে আমাদের অনেক অজানা বিষয় জানতে সাহায্য করার জন্য।

    Reply
  57. চাকরি ও ইন্টারভিউ একে ‍ অপরের পরিপূরক।ইন্টারভিউ ছাড়া চাবরি এটা সাধারণত হয় না। এমন অনেককেই দেখা যায় ,বারবার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি নামের সোনার হরিণটির দেখা পায় না। তখন তারা হতাশ হয়ে জীবন থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়। কিন্তু তারা জানে না ইন্টারভিউ দেওয়ার ও কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়েই যায়। তাই আমাদের প্রথমে ইন্টারভিউ দেওয়ার এই সুন্দর কৌশল গুলো জানতে হবে। উপরে উল্লেখিত কন্টেনটিতে এই বিষয়টি খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আমার মতে চাকুরী সন্ধানী প্রত্যেকের এই বিষয়গুলো সুন্দরভাবে জানা প্রয়োজন।

    Reply
  58. যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না কারণ আমরা ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল ই জানি না। ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল জানতে হলে এই আর্টিকেল টা সবার পড়া উচিত।

    Reply
  59. চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ।ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।আর্টিকেলটি তে চাকরির বিভিন্ন কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। আশা করছি চাকরি প্রার্থীদের জন্য আর্টিকেলটি উপকারী হবে।লেখক কে আনেক ধন্যবাদ জানাই নতুন চাকরিপ্রার্থীদের কথা চিন্তা করে এমন তথ্যবহুল একটি আর্টিকেল লেখার জন্য।

    Reply
  60. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে।যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। এই কন্টেন্টে খুব সুন্দর করে চাকরির ইন্টারভিউ এর সকল খুটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।আমি এই কনটেন্টটি পড়ে অনেক উপকৃত হয়েছি, ধন্যবাদ।

    Reply
    • চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। এই কনটেন্টিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার প্রস্তুতি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

      Reply
  61. চাকরি হওয়ার বা পাওয়ার পূর্ব শর্ত হলো উপস্থিত সাক্ষাৎ করা যেটাকে আমরা সবাই ইন্টারভিউ নামে জানি। ইন্টারভিউ মানে বিষয় ভিত্তিক জ্ঞান এবং উপস্থিত বুদ্ধিমত্তার পরিচয়।
    সেই পরিস্থিতি সম্মুখী হলে আমরা সবাই প্রায় খুব বিষন্ন হয়ে পড়ি, টেনশনে পড়ে যায়, না জানি কি হবে, কি প্রশ্ন করবে উত্তর দিতে পারবে কিনা, চাকরি টা আমার হবে কি না ইত্যাদি। কিন্তু ইন্টারভিউ বোর্ড নিজেকে উপস্থাপন করার কিছু গুরুত্বপূর্ণ কৌশল আছে যা আমরা অনেকে জানিনা যার ফলে ইন্টারভিউ বোর্ড নিজের সঠিক বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিতে ব্যর্থ হয়।
    ফলে অনেক সময় চাকরি হয় না।আমরা হতাশ হয়ে যায়। এই আর্টিকেলে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার যে গুরুত্বপূর্ণ কৌশল গুলোর তুলে ধরা হয়েছে তা বর্তমানে সময়ে চাকরি পাওয়ার যে কম্পিটিশন চলছে তাতে ইন্টারভিউ বোর্ড নিজেকে উপস্থাপন করার জন্য এবং চাকরি পাওয়ার জন্য খুব দরকারী। তাই লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ জানায় এত প্রয়োজনীয় আর্টিকেল তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  62. চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় বিষন্ন হয়ে যাই ।যার কারনে অনেক সময় চাকরি হওয়ার থাকলেও হয় না।চাকরির জন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়।

    Reply
  63. ছোট বড় সকল চাকরির ক্ষেত্রেই ইন্টারভিউ অন্যতম। ইন্টারভিউ ছাড়া কোন চাকরি সম্ভব নয়। আর এই ইন্টারভিউ খারাপ হওয়ার জন্য অনেক সময় পছন্দের চাকরিটি আর হয় না
    তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। লেখক কে ধন্যবাদ ইন্টারভিউর কৌশল গুলো ধারাবাহিকভাবে তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  64. চাকরি জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে জানা উচিত। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। নিবন্ধটির মাধ্যমে নতুন দৃষ্টিভঙ্গি ও কৌশল শিখতে পারবেন। নিবন্ধটির অনেকের জন্যই উপকারী হবে এবং তাদের ইন্টারভিউ প্রস্তুতিতে সহায়ক হবে। ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  65. মা শা আল্লাহ অনেক সুন্দরভাবে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল গুলো বর্ণনা করা হয়েছে। এই কৌশলগুলো কেউ প্রয়োগ করলে চাকরি পাবার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  66. আসসালামু আলাইকুম, প্রত্যেক মানুষের একটি স্বপ্ন থাকে আর এই সপ্নকে তাঁরাই বাস্তবায়ন করতে পারে যাঁরা পরিকল্পিত ভাবে নিজেকে গুছিয়ে উপস্থাপন করতে পারে।চাকরি একটা স্বপ্ন কিন্তু এই চাকরির জন্য আমাদের সবাইকে কয়েকটি ধাপ অতিক্রম করতে হয় তার মধ্যে ইন্টারভিউ একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। উক্ত কন্টেন্ট এ ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল সুন্দর ও সাবলীলভাবে তুলে ধরা হয়েছে যা জানা সবারই জরুরী, তাই এই আর্টিকেল দ্বারা অনেকেই উপকৃত হবে ইনশাআল্লাহ, বিশদভাবে জানতে নিচের দেওয়া লিংকে ক্লিক করে পড়ুন 👍

    Reply
  67. চাকরির গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। উপরের কন্টেন্টটিতে ইন্টারভিউ এর কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।
    লেখককে ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি কন্টেন্ট লিখার জন্য।

    Reply
    • চাকরি পাওয়ার জন্য ইন্টারভিউ দিতে হয়। ইন্টারভিউ দেয়ার কিছু কৌশল রয়েছে, যেগুলো জানা না থাকার কারনে অনেকেই চাকরি পেতে ব্যর্থ হয়।এই কৌশলগুলো যে কেউ প্রয়োগ করলে চাকরি পাবার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। এই কনটেন্টটিতে চাকরির ইন্টারভিউ এর কৌশল গুলো আলোচনা করা হয়েছে, যা চাকরির ইন্টারভিউতে সফল হওয়ার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। লেখক কে ধন্যবাদ এত সুন্দর একটা কনটেন্ট লেখার জন্য।

      Reply
  68. চাকরির-ইন্টারভিউ দেওয়ারর মাধ্যমে চাকরি পাওয়ার নিশ্চয়তা থাকে। এই কন্টেন্টে লেখক অনেক কৌশলের কথা উল্লেখ্য করেছেন। যা একজন চাকরি প্রাপ্তির জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ।

    Reply
  69. মেধা থাকলেই যে সব সময় চাকরি হবে এমনটা সব সময় হয় না।চাকরির জন্য চাকরির ইন্টারভিউ সম্পর্কে ধরণা থাকাটা অনেক জরুরী।যা উপরে আটি্কেলটিতে সুন্দর ভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

    Reply
  70. চাকরির ইন্টারভিউ মানেই কনফিউশন চাকরিটা আমারই হবে, না হবেনা আর ইনটারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে সেটাও না। তাই ভালো ইনটারভিউ দেয়ার জন্য ইনটারভিউ এর আগে কিছু কৌশল রয়েছে
    যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন। কনটেন্টটির জন্য লেখককে অনেক ধন্যবাদ

    Reply
  71. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ।চাকরির জন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়।লেখককে অসংখ্যক ধন্যবাদ এমন উপকারি কনটেন্ট তুলে ধরার জন্য

    Reply
  72. চাকরি খোঁজা মানেই তো ইন্টারভিউ এর মুখোমুখি হওয়া। এক নতুন পরিবেশে, নতুন ইন্টারভিউয়ারদের গুচ্ছ প্রশ্নের উত্তর দেওয়া! চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল গুলো জানা থাকলে টেনশন যাবে কমে।

    Reply
  73. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানা যাবে।লেখককে ধন্যবাদ।

    Reply
  74. চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ।চাকরি মানেই ইন্টারভিউ।লেখক কে ধন্যবাদ ইন্টারভিউর কৌশল গুলো ধারাবাহিকভাবে তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  75. একটি চাকরী লাভের জন্য প্রতিটি পরীক্ষার্থীকেই ইন্টারভিউ এর মুখামুখি হতে হয়। এর মাঝে যিনি যত সুন্দর ভাবে প্রশ্নগুলোর উত্তর দিতে পারেন এবং যিনি যত সুন্দর ভাবে নিজেকে উপস্থাপন করতে পারেন তিনিই থাকেন সবচেয়ে এগিতে। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। এই কনটেন্টটি পড়ার মাধ্যমে আমরা সুবিস্তারে কৌশল গুলি সর্ম্পকে জানতে পারব এবং ইন্টারভিউ এর জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে করতে পারব।

    Reply
  76. চাকরি জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ।এই ইন্টারভিউ ফেস করার কিছু কৌশল রয়েছে। এখানে সেই কৌশলগুলি বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরার জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  77. ইন্টারভিউ অনেকের ক্ষেত্রে উচ্চচাপ বা উদ্বেগের কারণ হতে পারে, বিশেষ করে যদি এটি আপনার প্রথম সাক্ষাৎকার হয়। এক্ষেত্রে সামান্য অনুশীলন এবং প্রস্তুতি আপনার ইন্টারভিউতে সফলতা নিয়ে আসে। একজন নিয়োগকর্তা কী জিজ্ঞাসা করবেন তা আমরা সঠিকভাবে জানতে না পারলেও উক্ত আর্টিকেলটি পড়ে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে একটি পূর্ণাঙ্গ ধারণা আয়ত্ত করতে পারি। যা আমাদের চাকরির ক্ষেত্রে মূখ্য ভূমিকা পালন করবে।

    Reply
  78. চাকরির ইন্টারভিউ কৌশল আয়ত্ত করা আপনার স্বপ্নের চাকরি সুরক্ষিত করার চাবিকাঠি।আপনার দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতা আত্মবিশ্বাসের সাথে প্রদর্শন করতে ভুলবেন না, পাশাপাশি সক্রিয়ভাবে শোনা এবং চিন্তাশীল প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করুন।তাই এগিয়ে যান, এবং আপনার পরবর্তী সাক্ষাত্কারটি বিনয়ী এবং করুণার সাথে জয় করুন।লেখককে ধন্যবাদ।

    Reply
  79. এসব বিষয়গুলো মাথায় রাখলে আর ভাইভা কিংবা ইন্টারভিউ বোর্ডে দরদর বেগে ঘাম ছুটবে না। মার্জিত ভাষায় উপযুক্ত উত্তরের মাধ্যমে পরীক্ষককে ইম্প্রেস করতে পারলেই কিন্তু চাকরিটা আপনার হাতের মুঠোতেই।। দারুণ পারফরম্যান্সের মাধ্যমে মনমতো ভাইভা দিয়ে পছন্দের চাকরিটা বাগিয়ে নিন।

    Reply
  80. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার সময়ে সম্মানজনক এবং সেরা প্রস্তুতি গুরুত্বপূর্ণ। আগে কোম্পানির সম্পর্কে ভালোভাবে জানা এবং স্বীকৃতি প্রশ্ন থাকলে তাদের জন্য উত্তর প্রস্তুত করা জরুরী। প্রশ্নের জবাবে নিজের ক্ষমতা, অভিজ্ঞতা এবং যোগ্যতা উল্লেখ করা গুরুত্বপূর্ণ। এতে আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি পায়। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন গুরুত্বপূর্ন একটি কনটেন্ট উপহার দেওয়ার জন্য।

    Reply
  81. চাকুরির ইন্টারভিউ নিয়ে আমাদের মত চাকরি প্রত্যাশীদের মাঝে অনেক ধরনের ভয় এবং জড়তা কাজ করে।
    লেখক কন্টেন্টিতে ইন্টারভিউ নিয়ে ছোট ছোট থেকে প্রতিটা বিষয় সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছেন, যা ইন্টারভিউ নিয়ে আমাদের সকল ভয় এবং জড়তা কাটিয়ে তুলতে সাহায্য করবে।
    এবং আশা করছি এই কন্টেন্ট টি মনোযোগ সহকারে পড়লে, যেকোনো ইন্টারভিউ সহজেই ফেস করতে পারব।
    অসংখ্য ধন্যবাদ লেখক কে এত সুন্দর একটি আর্টিকেল আমাদের সামনে তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  82. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়।ইন্টারভিউ দিতে দিতে যখন চাকরি হয় না তখন নিজের মধ্যে হতাশা কাজ করে।মনে মনে নিজেকে মনে হয় সমাজ ও জাতীর বোঝা।ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।ধন্যবাদ লেখককে খুব সহজ করে কন্টেন্টটা উপস্থাপন করার জন্য।আমিও একরকম হতাশাগ্রস্থ হয়ে ছিলাম এই লেখাটি পড়ার পর অনেক উপকৃত হলাম।

    Reply
  83. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে। ইন্টারভিউ দিতে যাওয়ার পূর্বে আমাদের মনে অনেক স্বপ্ন থাকে। স্বপ্ন দেখি চাকরিটা আমারই হবে। চাকরিটা যদি আমার হয় তবে চাকরির বেতন দিয়ে এই করবো সেই করবো কত ধরণের স্বপ্ন যে আমরা দেখে থাকি। আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  84. ইন্টারভিউ অনেকের ক্ষেত্রে উচ্চচাপ আর উদ্বেগ সৃষ্টির কারণ হতে পারে।
    অনেকেই যোগ্যতা এবং আত্মবিশ্বাস থাকা সত্ত্বেও ঘাবড়ে যান। আবার অনেকে ইন্টারভিউ দিতে দিতে চাকরি হয় না, পরিশেষে হতাশাগ্রস্ত হন।
    এই কন্টেন্টটিতে খুব সুন্দর ও সহজ ভাবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল গুলো তুলে ধরা হয়েছে বিস্তারিত উল্লেখ করে। যেহেতু ইন্টারভিউয়ে বিজয়ী হতে প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে ভদ্রতা এবং বুদ্ধিমত্তার সাথে। এই কন্টেন্টটি তাদের জন্যে অনেক উপকার হবে।

    Reply
  85. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। কন্টেন্টটিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার সহজ কিছু কৌশল খুব সুন্দরভাবে আলোচিত হয়েছে।

    Reply
  86. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  87. চাকরির প্রথম ধাপ ই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে আপনার চাকরি হবে এমন কোন কথা নেই। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে সে কৌশল অনুযায়ী ইন্টারভিউ দিলে অবশ্যই আপনার চাকরি হবে।উপরে যে যে কৌশল গুলোর কথা বলা হয়েছে একজন চাকরি পার্থির জন্য কৌশল গুলি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

    Reply
  88. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।
    আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  89. চাকরি হওয়ার প্রধান ধাপ হল ইন্টারভিউ । প্রত্যেক শিক্ষার্থীর চাকরি হওয়ার স্বপ্ন থাকে ।কিন্ত নিজেকে সুন্দর ভাবে তৈরি করতে পারেনা বলে চাকরি হয় না ।তারপর বেকার হওয়াই সমাজের জন্য বোঝা হয়ে যায়।এজন্য আমাদের প্রথম থেকেই নিজেকে সুন্দর ভাবে তৈরি করতে হবে।ইন্টারভিউ বোর্ডে নিজেকে সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করতে হবে।স্যারদের সাথে ভাল ব্যবহার ,হাসি মুখে কথা বলা ,মার্জিত ভাবে কথা বলা ,শরীর না চুলকানো ,মধ্য সুরে কথা বলা ,প্রশ্ন ভাল ভাবে শোনে উত্তর দেওয়া ও অন্যান্য ধাপ গুলো অনুসরণ করলে আশা করি সফল হওয়া যাবে। এই আর্টিকেল অনেক ভাল লেগছে আমার।এই আর্টিকেল থেকে আগের চেয়েও অনেক কিছু শিখতে পেরেছি। আর্টিকেলটি আমাদের সামনে তুলে ধরার জন্য অনেক ধন্যবাদ ।

    Reply
  90. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য কিছু কৌশল জানা থাকলে সফলতা অর্জনের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। যেমন, প্রস্তুতি গ্রহণ, প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে স্টাডি, স্পষ্টভাবে উত্তর দেওয়া, আত্মবিশ্বাস বজায় রাখা, এবং ভদ্রতা প্রদর্শন করা। এই কৌশলগুলো মেনে চললে ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল পাওয়া সম্ভব।

    Reply
  91. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। এই আর্টিকেল এ লেখক তা পুঙ্খানুপুঙ্খ বর্ণনা করেছেন। ধন্যবাদ লেখককে এত সুন্দর একটা উপযোগী আর্টিকেল উপহার দেওয়ার জন্য।

    Reply
  92. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। অনেকে বারবার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি না হবার জন্য বেকার জীবন যাপন করে , হতাশ হয়ে পড়ে। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে , যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় । যার ফলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। উপরে উল্লেখিত কন্টেনটিতে এই কৌশলগুলো খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে ,যা পড়ে চাকুরী সন্ধানী প্রত্যেকের অনেক উপকার হবে।

    Reply
  93. চাকরি নামক সোনার হরিণ পাওয়ার প্রথম অন্তরায় ইন্টারভিউ। চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। আর ইন্টারভিউ দিলেই যে সবার চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার বেশ কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে সকলের উচিত চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে জানা। এই আর্টিকেল পড়ার মাধ্যমে খুব সহজেই এ বিসয়ে জানা সম্ভব।

    Reply
  94. চাকরির ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে ভাবছেন, যে কোন প্রশ্ন করুক না কেন আমি উত্তর দিতে পারব এই আত্মবিশ্বাস আপনার মাঝে আছে কিন্তু আপনি যদি ইন্টারভিউয়ের কিছু কৌশল সম্পর্কে না জেনে না থাকার কারনে পিছিয়ে পরলেন। তখন আপনি চিন্তিত হয়ে পড়েন।এই সমস্যার সমাধান করতে লেখক আর্টিকেলটি অত্যন্ত চমৎকারভাবে উপস্থাপন করেছেন।

    Reply
  95. চাকরির ইন্টারভিউতে সার্টিফিকেটের পাশাপাশি একজন মানুষের নানান দিক লক্ষ্য করা হয়। তাই একটি ভালো চাকরি পেতে হলে ইন্টারভিউর জন্য সঠিকভাবে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। আর্টিকেলটিতে লেখক ইন্টারভিউ দেওয়ার অনেকগুলো কৌশল সম্পর্কে সুন্দর আলোচনা করেছেন।

    Reply
  96. আমরা চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারলাম।এই নিয়মগুলো মেনে চললে চাকরির পরীক্ষায় ভালো করা সম্ভব।

    Reply
  97. আর্টিকেলটিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার বেশ কিছু কৌশল অত্যন্ত চমৎকারভাবে উপস্থাপন করেছেন লেখক। ইন্টারভিউর কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায় তার জন্য এই আর্টিকেলটি সকলের পড়া উচিত।
    আমার মতো অনেকের জন্য অনেক উপকারি এই আর্টিকেলটি। লেখককে অনেক ধন্যবাদ।

    Reply
  98. চাকরিতে প্রবেশের জন্য ইন্টারভিউ একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়। এই পর্যায়ে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই প্রার্থী যোগ্যতা থাকা সত্ত্বেও অসফল হয়ে যায়।
    আত্মবিশ্বাসের অভাব, নেতিবাচক মনোভাব ও সঠিক আচরণ বিধি সম্পর্কে সচেতন না হওয়াও এই ব্যার্থতার জন্য অনেকাংশে দায়ী।
    সূই ও সূতার সমন্বয়ে যেমন সুন্দর নকশা গড়ে তোলা হয়। তেমনি সূক্ষ্ম কিছু বিষয় আছে যেগুলোর সমন্বয়ে প্রার্থীর যোগ্যতা সফলতায় পরিণত হয়।
    আলোচ্য কন্টেন্টটিতে গুরুত্বপূর্ণ সেই বিষয়গুলো সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। যেগুলোর মাধ্যমে একজন প্রার্থী আত্মবিশ্বাসের সাথে সচেতনতা সহকারে ইন্টারভিউ বোর্ডের সামনে নিজেকে উপস্থাপন করতে পারবে।

    Reply
  99. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। আমরা যারা চাকরি নিতে চাই তাদের সবাইকেই ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে বাছাই করে যোগ্য লোককে চাকরি দেওয়া হয়।
    এমন অনেকেই আছে যাদের বারবার ইন্টারভিউ দেওয়ার পরও চাকরি হচ্ছে না।তাই কিভাবে ইন্টারভিউ দিলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় সে বিষয়ে আগে জানতে হবে।
    এই আর্টিকেলে কিভাবে ইন্টারভিউ দিলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে তার কিছু কৌশল সম্পর্কে বলা হয়েছে।
    আপনি যদি একজন চাকরি প্রার্থি হয়ে থাকেন এবং যদি মন থেকেই চান একটি ভালো চাকরি আপনার হয়ে যাক,তাহলে বলব এই আর্টিকেলটি আপনার জন্যই।

    Reply
  100. ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল প্রয়োগ করে সহজেই সফলতা লাভ করা যায়।

    Reply
  101. চাকরি শব্দটার সাথে ইন্টারভিউ অঙ্গাঙ্গি ভাবে জড়িত, ইন্টারভিউ চাকরির ক্ষেত্রে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে, ইন্টারভিউতে অধিকাংশ প্রার্থী বাদ পড়ে যায়, শুধুমাত্র নিয়ম-কানুন, আচার-আচরণ না জানার জন্য, ইন্টারভিউতে সঠিক উত্তর দেওয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হলো ম্যানার, কতটুকু বলতে হবে, কতটুকু বলা যাবে না, কোন পরিস্থিতিতে কিভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে কি করতে হবে এসব জানা| এগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ ফেস করা যেমন সহজ হয়, তেমনি বাছাই ক্ষেত্রে ও এগিয়ে থাকা সম্ভব, এখানে সে কৌশলগুলো বিস্তারিত আলোচনা করার জন্য লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ| খুবই প্রয়োজনীয় একটি আর্টিকেল, যা নতুন চাকরিপ্রার্থীদের জন্য অনেক উপকারে আসবে ইনশাআল্লাহ|

    Reply
  102. যেকোনো ধরনের চাকরির জন্য ইন্টারভিউ খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বর্তমানে আমাদের দেশে শিক্ষিত লোকের সংখ্যা বেশি অথচ তারা বেকার। ইন্টারভিউর পর ইন্টারভিউ দিচ্ছে কিন্তু চাকরি পাচ্ছে না।এর মূল কারণ হল তারা ইন্টারভিউর কৌশল জানে না। শুধু একাডেমিক যোগ্যতা থাকলেই হবে না বরং ইন্টারভিউর কলাকৌশল ও জানতে হবে।আর এই বিষয়টি উক্ত কন্টেন্ট এ বিস্তারিতভাবে তুলে ধরেছেন।ধন্যবাদ লেখককে বিষয়টি সুন্দরভাবে উপস্থাপন করার জন্য।

    Reply
  103. চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ ইন্টারভিউ।ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়।ধন্যবাদ এই বিষয়গুলো সুন্দরভাবে আলোচনা করার জন্য।

    Reply
  104. আসসালামু আলাইকুম, প্রথমে ধন্যবাদ জানাই লেখক কে যে তার সুন্দর অভিজ্ঞতা দিয়ে কনটের টা লেখার জন্য।
    কনটেন্টটা পড়লে সবাই ধারণা পেয়ে যাবে। প্রয়োজনীয় একটি আর্টিকেল, যা নতুন চাকরিপ্রার্থীদের জন্য অনেক উপকারে আসবে ইনশাআল্লাহ|

    Reply
  105. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়।আর এই বিষয়টি উক্ত কন্টেন্ট এ বিস্তারিতভাবে তুলে ধরেছেন।আপনি যদি একজন চাকরি প্রার্থি হয়ে থাকেন এবং যদি মন থেকেই চান একটি ভালো চাকরি আপনার হয়ে যাক,তাহলে বলব এই আর্টিকেলটি আপনার জন্যই।

    Reply
  106. চাকরির জন্য প্রতি নিয়তই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। কিন্তু এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না।চাকরিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে,যা অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায় সাথে সাথে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল ও অনেক বেড়ে যায়।এই আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে আমরা আরও বিস্তারিত জানতে পারব।

    Reply
  107. Nowadays, job equals to interview. Many people frequently attempt to obtain the desirable job, yet despite numerous interviews, they are failed. Then, they become frustrated in life. One of the main reason is they are unaware of several lovely interviewing tactics, which if learned, make the process quite simple and seamless. Additionally, there is a greater probability of landing a job if the interview goes well. Therefore, we must first learn these exquisite interviewing skills.
    The content described above does a pretty good job of presenting this subject. Every job applicant, in my opinion, ought to be well-educated in this area.

    Reply
  108. চাকরি পেতে হলে সর্বপ্রথম যে ধাপটি পার হতে হয় তা হলো ইন্টারভিউ । ভালো একটা কম্পানিতে চাকরি পেতে গেলে ইন্টারভিউ অতি জরুরি, চাকরি পাওয়া, না পাওয়া সবটা নির্ভর করে ইন্টারভিউর উপর,তাই ভালো ভাবে ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য পূর্ব প্রস্তুতি নেওয়া বা ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অবলম্বন করা দরকার,তাহলে চাকরি নিশ্চিত।

    Reply
  109. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।এই আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানা যাবে।

    Reply
  110. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। কনটেন্ট এ বর্ণিত কৌশল গুলো জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যায়। লেখককে ধন্যবাদ এ রকম একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করার জন্য।

    Reply
  111. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন একটি কনটেন্ট উপহার দেয়ার জন্য। আমরা সবাই এই কনটেন্ট থেকে আশা করি উপকৃত হব।

    Reply
  112. চাকরির ইন্টারভিউ দিতে গেলে সবার মনেই ভয় কাজ করে আমার চাকরিটা হবে তো।
    চাকরি পাওয়ার পূর্বেই সবাইকে প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হয়, ইন্টারভিউ এর প্রশ্ন সম্পর্কে স্টাডি করতে হয়, আত্মবিশ্বাস বাড়াতে হয়।এই কনটেন্টটিতে এই সকল বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

    Reply
  113. চাকরি করার প্রয়োজনীয়তা মানেই ইন্টারভিউ ফেস করতেই হবে। যারা চাকুরী করছে তাদেরকেও ইন্টারভিউর মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে। আর ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকুরী পাওয়া সম্ভব বিষয় টি এমন নয়। তবে ইন্টারভিউ তে কিছু বিষয় বা কৌশল আছে যেগুলো জেনে অনুশীলন করে সেই মোতাবেক ইন্টারভিউ দিলে আশা করা যায় চাকুরী পাওয়া যাবে। এই কন্টেন্টটিতে সেই কৌশল গুলোই সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা আছে। আশা করছি কন্টেন্ট টি পড়ে চাকুরী প্রার্থীগণ ইন্টারভিউর জন্য নিজেকে সঠিকভাবে প্রস্তুত করতে পারবে এবং চাকুরী পাবেন ইনশাআল্লাহ।

    Reply
  114. চাকরি এবং ইন্টারভিউ এই দুইটি শব্দই যেন একে অপরের সাথে অতপ্রতভাবে জড়িত। চাকরির আগে ইন্টারভিউ পর্ব টাই মজবুত হতে হবে। তাই ইন্টারভিউ যাতে সুন্দর এবং সাবলীল ভাবে দিতে পারেন, সেই বিষয়ে এই কনটেন্টটিতে কৌশল গুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন।
    ধন্যবাদ লেখক কে।

    Reply
  115. চাকুরীর সর্বপ্রথম ধাপ আবেদন করা, তারপর ইন্টারভিউ ফেস করা। এই ইন্টারভিউ তে অধিকাংশ লোক বাদ যায় শুধুমাত্র নিয়ম কানুন, আচরণ না জানার জন্য। ইন্টারভিউতে গুরুত্বপূর্ণ হলো ব্যবহার ,কথা বলার ধরন , প্রশ্নের উত্তর সুন্দর করে সাজিয়ে উপস্থাপন করতে হবে । কোন সিচুয়েশনে কি বলতে হবে। এগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ ফেস করা যেমন সহজ হয়, তেমনি প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হবার ক্ষেত্রেও এগিয়ে থাকা যায়। কেউ চাইলে এখান থেকে গাইডলাইন নিয়ে নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন।খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলো তুলে ধরার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ লেখককে ।

    Reply
  116. চাকরিতে প্রবেশের সর্বপ্রথম ধাপ হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউতে বিভিন্ন ধরনের প্রশ্ন করা হয় যার ভিত্তিতে চাকরিতে নিয়োগ দেওয়া হয়।তাই এই ইন্টারভিউ খুব ভালোভাবে দিতে হয়।নিন্মোক্ত কন্টেন্টিতে কিভাবে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো করা যায় সেই বিষয়ে টিপস শেয়ার করা হয়েছে।

    Reply
  117. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। ধন্যবাদ লেখক কে এত সুন্দর একটি লেখা উপস্থাপন করার জন্য।

    আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  118. চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে ইন্টারভিউতে ভালো করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। অনেক সময় দেখা যায় অনেকে যোগ্যতা সম্পন্ন হওয়া সত্ত্বেও ইন্টারভিউতে ভালো করতে না পারার কারণে চাকরি হয় না।তবে কিছু কৌশল ও দিকনির্দেশনা অনুসরণ করে ইন্টারভিউতে ভালো করা যেতে পারে। সেই কৌশল গুলো উল্লেখিত কন্টেন্টটিতে লেখক খুব সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন।কনটেন্টটিতে ইন্টারভিউতে ভালো করার জন্য সব ধরনের দিক নির্দেশনা উল্লেখ করা হয়েছে। কনটেন্টটি সকলের জন্য বিশেষ করে চাকরীপ্রার্থীদের জন্য খুবই উপকারী। লেখককে ধন্যবাদ এমন একটি সময়োপযোগী কনটেন্ট তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  119. এই কনটেন্টটিতে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সুন্দর করে বুঝান হয়েছে।এই নিয়মগুলো মেনে চললে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো করা সম্ভব।

    Reply
  120. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার ক্ষেত্রে কন্টেন্টটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কন্টেন্টটি জন্য বিশেষ করে চাকরিপ্রার্থীদের জন্য খুবই উপকারী লেখক কে ধন্যবাদ।

    Reply
  121. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমনটি কিন্তু না। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে
    সেই কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।

    আজকের আর্টকেলটি ভালোভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
    • চাকরিতে প্রবেশের সর্বপ্রথম ধাপ হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউতে বিভিন্ন ধরনের প্রশ্ন করা হয় যার ভিত্তিতে চাকরিতে নিয়োগ দেওয়া হয়।তাই এই ইন্টারভিউ খুব ভালোভাবে দিতে হয়।কনটেন্ট এ বর্ণিত কৌশল গুলো জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যায়। লেখককে ধন্যবাদ এ রকম একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করার জন্য।

      Reply

      Reply
  122. ক্যারিয়ার জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো চাকরি।বর্তমানে চাকরির বাজারে অনেকেরই বারবার ভাইভা দেওয়ার পরেও চাকরি না হওয়াতে জীবন দূর্বিষহ হয়ে যায় আর বেকার হিসেবে পরিচিত হয়।পর্যাপ্ত প্রস্তুতি আর চাকরি দেওয়ার সঠিক কৌশল অবলম্বন করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বহুগুণ বেড়ে যায়। নিচের আর্টিকেলে সুন্দর ও সাবলীল ভাষায় ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল অবলম্বনের উপায় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

    Reply
  123. ইন্টারভিউ হল চাকরি পাওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। চাকরি করতে হলে প্রথম ইন্টারভিউ সম্মুখীন হতেই হবে। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে খুব নার্ভাস হয়ে পড়ি। ইন্টারভিউ দেওয়ার কতগুলো কৌশল আছে এই কৌশলগুলো যদি জানা থাকে তাহলে আমরা খুব সহজে একটা ইন্টারভিউ ফেস করতে পারি। ইন্টারভিউ বোর্ডে নিজেকে খুব সাবলীল এবং স্মার্ট ভাব উপস্থাপন করতে হয়। ইন্টারভিউ কেমন হবে আসলে নির্ভর করে নিয়োগ কারী প্রতিষ্ঠানে কর্তৃপক্ষের উপর। আমাদের দেশে শিক্ষিত লোকের সংখ্যা বেশি কিন্তু অথত অথচ তারা বেকার কারণ হলো তারা চাকরি দিতে গিয়ে ঠিকমতো ইন্টারভিউ কৌশল গুলো অবলম্বন করতে পারে না এবং ইন্টারভিউতে সঠিকভাবে দিতে পারেনা। ইন্টারভিউ দেওয়ার কতগুলো কৌশল আছে, কৌশল গুলো অবলম্বন করলে একজন প্রার্থী সহজেই চাকরি পেতে পারেন এই কনটেন্টিতে লেখক খুব সুন্দর ভাবে চাকরির ইন্টারভিউ কতগুলো কৌশল সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন আমি মনে করি একজন প্রার্থীর জন্য এই কনটেন্টি সহায়ক ভূমিকা পালন করবে লেখক কে ধন্যবাদ এত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় এই কনটেন্টিতে আলোচনা করার জন্য

    Reply
  124. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলো লেখক অনেক সুন্দর করে বর্ণনা করেছেন। যা সবার উপকারে আসবে। এত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় এই কনটেন্টিতে আলোচনা করার জন্য লেখককে ধন্যবাদ।

    Reply
  125. চাকরির জন্য ইন্টারভিউ সকলকেই দিতে হয়। তাই ইন্টারভিউ দিতে হলে অনেক কিছু নিয়ম কানুন মেনে চলতে হয় ইন্টারভিউ এর সময়। অনেকেই আছেন এগুলো সঠিক ভাবে জানেনা তাই ইন্টারভিউ দিয়ে চাকরি হয়না। কন্টেন্টটিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার সকল নিয়ম কানুন লেখা রয়েছে সেগুলো পড়লে সহজেই ইন্টারভিউ দিতে পারবে।

    Reply
  126. Interview is the first and most important step in job life. Because job means interview. But there are some interview tricks. Which are beautifully described by the author step by step. Which will benefit everyone. Thanks to the author.

    Reply
  127. চাকরির জন্য আমাদেরকে ইন্টারভিউ দিতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন দূর্বিসহ হয়ে পড়ে।তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে যায়।চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। এই আর্টকেলের মাধ্যমে আমরা ইন্টারভিউয়ের কৌশল জানতে পারবো। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  128. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলোর উপর চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে নির্ভর করে। তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  129. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া, চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ।চাকরির জন্য আমাদেরকে ইন্টারভিউ দিতে হয়।চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমনটি কিন্তু না। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে
    সেই কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।তাই ইন্টারভিউ যাতে সুন্দর এবং সাবলীল ভাবে দিতে পারেন, সেই বিষয়ে এই কনটেন্টটিতে কৌশল গুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন।
    ধন্যবাদ লেখক কে।

    Reply
  130. মধ্যবিত্ত পরিবারের বেশির ভাগ অংশই জীবিকা নির্বাহ করে চাকরির মাধ্যমে। একজন কর্মক্ষম মানুষই পুরো পরিবারের দায়িত্ব নেয় আর সেই মাধ্যম হয় চাকরি। এই চাকরি পাওয়া নিয়ে অনেকের জ্বলপনা কল্পনা থাকে। অনেক আশা থাকে। আর একটি চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রথম ও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কিন্তু এই জায়গায় এসে বেশির ভাগ মানুষই ব্যর্থ হয়। কারণ অনেকেই ইন্টারভিউ দেয়ার সঠিক কৌশল সম্পর্কে অবগত থাকেন না। যার ফলে ইন্টারভিউ দেয়ার ক্ষেত্রে তারা পিছিয়ে পরে। এক্ষেত্রে লেখক এই আর্টিকেলটিতে ইন্টারভিউ এর কৌশল সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট তুলে ধরেছেন। যা অনুসরণ করলে ইন্টারভিউ এর ক্ষেত্রে অনেকটাই সহায়ক হবে ইন শাহ্ আল্লাহ।

    Reply
  131. চাকরি জীবনে প্রথম বিষয় হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমন কিন্তু না। ইন্টারভিউ দেওয়ার অনেক নিয়ম কানুন রয়েছে। অনেকেই এই নিয়মকানুন জানেন না। এই কনটেন্টটিতে ইন্টারভিউ এর সকল কৌশল বলা হয়েছে। এই কনটেন্টি ইন্টারভিউ সম্পর্কে অনেক কিছু লেখা রয়েছে। তাই ইন্টারভিউ যাওয়ার পূর্বে এর সকল নিয়ম কানুন জানা দরকার। একটি চাকরি ইন্টারভিউ এর উপর নির্ভর করে।

    Reply
  132. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ চাকরির ক্ষেত্রে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। ইন্টারভিউ তে সঠিক উত্তর দেয়ার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো ম্যানার, কতটুকু বলতে হবে, কতটুকু বলা যাবেনা, কোন সিচুয়েশনে কিভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে কি করতে হবে এসব জানা। আবার কিছু প্রশ্নের উত্তর ডিপ্লোম্যাটিক্যালি দেয়া। এগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ ফেস করা যেমন সহজ হয়, তেমনি বাছাই হওয়ার ক্ষেত্রেও এগিয়ে থাকা যায়। নতুন চাকরি প্রত্যাশিত সকল ক্যান্ডিডেট এর জন্য কন্টেন্ট এমন তথ্যবহুল একটি কন্টেন্ট সহায়ক হবে বলে মনে করছি।
    ধন্যবাদ লেখককে এতো সুন্দর একটি কন্টেন্ট লেখার জন্য।

    Reply
  133. ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হয়ে যাবে তা না তবে ইন্টারভিউ এ কিছু কৌশল অবলম্বন করলে সেটা অনেকাংশে সহজ হয়ে যাবে চাকরি পাওয়া। আজকের নিবন্ধে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় তোলে ধরা হয়েছে।

    Reply
  134. লেখাপড়া শেষে চাকরি না পেলে শিক্ষিত ছেলে ও মেয়েরা সমাজের জন্য বোঝা হয়ে যায় । তাদের চরিত্রে বেকারের সীলমোহর লেগে যায়। তারা চাকরি পেতে সঠিক কৌশল না জানায় চাকরি হয়না ফলে পরিবারেরও বোঝা হয়ে যায়। ব্যক্তিত্ব বা মূল্যায়ন বলতে তাদের কিছুই থাকে না। এরকম চিত্র আমাদের দেশের প্রায় ঘরে ঘরেই দেখা যায়। তাই ভাল তথা মান সম্পন্ন চাকরি পেতে গুরুত্ব পূর্ণ কিছু কৌশল জানা অত্যন্ত জরুরি।

    Reply
  135. আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান অর্জন করা যাবে এবং চাকরি প্রাপ্তির সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।

    Reply
  136. জীবন যুদ্ধে পড়াশোনার পর পর-ই চাকরির জন্য প্রস্তুতি নিতে হয় যাতে চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ নামক পরীক্ষায় দক্ষতার সাথে পাশ করা যায়। কেননা ছোট বড় সকল চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ প্রয়োজন।ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা চাকরি প্রার্থী সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে চাকরি প্রার্থীর আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা তাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।
    উক্ত কনটেন্টে একজন চাকরিপ্রার্থীর ইন্টারভিউ টিপস, ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের পূর্বে করণীয়, ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের পরবর্তী করণীয় সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। যা একজন চাকরি প্রার্থীর ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আমি মনে করি।

    Reply
  137. ইন্টারভিউ মানেই স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে চলা, আর এর জন্য যেভাবে প্রস্তুতি নিতে পারি সেই বিষয়টিই এখানে সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে ‌।

    Reply
  138. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। লেখক এই কনটেন্টটিতে চাকরির কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। এমন তথ্যবহুল একটি কন্টেন্ট চাকরি প্রার্থীদের জন্য অত্যন্ত সহায়ক হবে।

    Reply
  139. ইন্টারভিউ চাকরির ক্ষেত্রে খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।ইন্টারভিউ তে ভাল করার জন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়,তাহলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে যায়।এই কনটেন্ট টা ইন্টারভিউ এর কৌশল গুলো আলোচনা করা হয়েছে।

    Reply
  140. এই আর্টিকেলটি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার বিভিন্ন কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানিয়েছে। ইন্টারভিউয়ের পূর্ব প্রস্তুতি, ইন্টারভিউ বোর্ডে মনোযোগ সহকারে প্রশ্ন শোনা, স্পষ্ট ও সহজভাবে উত্তর দেওয়া, এবং ভদ্রতা বজায় রাখা গুরুত্বপূর্ণ। প্রশ্নকারীদের সঙ্গে চ্যালেঞ্জ বা তর্ক না করা, রাগান্বিত বা নার্ভাস না হওয়া এবং শুদ্ধ ভাষা ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এই কৌশলগুলো মেনে চললে ইন্টারভিউতে সফল হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বৃদ্ধি পায়।

    Reply
  141. চাকরির ইন্টারভিউ প্রস্তুতি কিভাবে নিতে হবে এ বিষয়ে কিছু কৌশল সম্পর্কে এই কনটেন্টটিতে সুন্দর, সাবলীল ও সহজ ভাষায় আমাদেরকে অবহিত করা হয়েছে। চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

    Reply
  142. চাকরি খোঁজা মানেই ইন্টারভিউ এর মুখোমুখি হওয়া। আর তাই, চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপই হচ্ছে ইন্টারভিউ। নতুন পরিবেশে, নতুন ইন্টারভিউয়ারদের গুচ্ছ প্রশ্নের উত্তর দেওয়া , চাকরিপ্রার্থীরা কতটা পারদর্শী তার ওপর ভিত্তি করে যোগ্যতা যাচাই হয় না। বরং কতটা ভালো করে কাজ করবেন, ইন্টারভিউয়ে প্রশ্নকর্তাদের সামনে বসে তার সন্তোষজনক বর্ণনার ওপরই প্রার্থীদের যাচাই করা হয়। চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল গুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে চাকরি প্রার্থীর আত্মবিশ্বাস, মনোবল যেমন অনেক বেড়ে যাবে তেমনি এই মনোবল তাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে অনেকাংশে। কনটেন্টটিতে একজন চাকরিপ্রার্থীর ইন্টারভিউ টিপস, ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের পূর্বে করণীয়, ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের পরবর্তী করণীয় সম্পর্কে সাবলীল ভাষায় আলোচনা করা হয়েছে। যা প্রতিটি চাকরি প্রার্থীর ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আমি আশা করি।

    Reply
  143. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলোর উপর চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে নির্ভর করে। ইন্টারভিউ যাতে সুন্দর এবং সাবলীল ভাবে দেওয়া যায়, সেই বিষয়ে লেখক এই কনটেন্টটিতে কৌশল গুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন।
    ধন্যবাদ লেখক কে এত সুন্দর করে বিষয়টি তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  144. যে কোন চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ ইন্টারভিউ।ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়।ধন্যবাদ লেখক কে এই বিষয়গুলো এত সুন্দরভাবে আলোচনা করার জন্য

    Reply
  145. চাকরিতে যোগদানের জন্য প্রথমে ইন্টারভিউ দিতে হয়। ইন্টারভিউ এর উপর ভিত্তি করে চাকরি হওয়া না হওয়া নির্ভর করে। ইন্টারভিউর প্রস্তুতি কিভাবে নিতে হবে এ বিষয়ে কিছু কৌশল সুন্দর, সাবলীল ও সহজভাবে কনটেন্টে বর্ননা করা হয়েছে। চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো সম্পর্কে জানা খুবই জরুরি।

    Reply
  146. ইন্টারভিউ হল চাকরি পাওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। চাকরি করতে হলে প্রথম ইন্টারভিউ সম্মুখীন হতেই হবে। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে খুব নার্ভাস হয়ে পড়ি। ইন্টারভিউ দেওয়ার কতগুলো কৌশল আছে এই কৌশলগুলো যদি জানা থাকে তাহলে আমরা খুব সহজে একটা ইন্টারভিউ ফেস করতে পারি। ইন্টারভিউ বোর্ডে নিজেকে খুব সাবলীল এবং স্মার্ট ভাব উপস্থাপন করতে হয়। ইন্টারভিউ কেমন হবে আসলে নির্ভর করে নিয়োগ কারী প্রতিষ্ঠানে কর্তৃপক্ষের উপর। আমাদের দেশে শিক্ষিত লোকের সংখ্যা বেশি কিন্তু অথত অথচ তারা বেকার কারণ হলো তারা চাকরি দিতে গিয়ে ঠিকমতো ইন্টারভিউ কৌশল গুলো অবলম্বন করতে পারে না এবং ইন্টারভিউতে সঠিকভাবে দিতে পারেনা। ইন্টারভিউ দেওয়ার কতগুলো কৌশল আছে, কৌশল গুলো অবলম্বন করলে একজন প্রার্থী সহজেই চাকরি পেতে পারেন এই কনটেন্টিতে লেখক খুব সুন্দর ভাবে চাকরির ইন্টারভিউ কতগুলো কৌশল সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন আমি মনে করি একজন প্রার্থীর জন্য এই কনটেন্টি সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।ধন্যবাদ লেখক কে এই বিষয়গুলো এত সুন্দরভাবে আলোচনা করার জন্য।

    Reply
  147. চাকরি পাওয়ার অন্যতম ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। এই ইন্টারভিউ এর দ্বারা চাকরি পাওয়ার মাধ্যমে মানুষের জীবনের মোড় ঘুরে যেতে পারে। লেখক এখানে চাকরির ইন্টারভিউ সম্পর্কিত কতগুলো গুরুত্বপূর্ণ টিপস শেয়ার করার পাশাপাশি ইন্টারভিউ বোর্ডে করণীয় সম্পর্কিত যে নির্দেশনা বলি প্রদান করেছেন তা একজন চাকরি সন্ধানী মানুষের বাস্তব জীবনে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

    Reply
  148. এই কনটেন্টে বর্ণিত যে সকল কৌশল গুলো রয়েছে, তা জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যায়, সবার জানা উচিত, লেখক কে অনেক ধন্যবাদ জানাই এত সুন্দর করে, এত সহজ ভাষায় চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য, সঠিক গাইড লাইন তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  149. ছোট চাকরি হোক বা বড় চাকরি হোক ইন্টারভিউ আমাদের ফেস করতেই হয়।যদি আমরা ইন্টারভিউ দেওয়ার সঠিক কলা কৌশল না জানি তাহলে চাকরি পাওয়া কঠিন হয়ে পড়ে।এই আর্টিকেলে কিভাবে ইন্টারভিউ দিতে হয় তারই সঠিক গাইড লাইন দেওয়া হয়েছে যে গুলো ফলো করলে আমাদের চাকরি পাওয়ার পথ সহজ করে দিতে সাহায্য করে। এত সুন্দর কন্টেন্টি উপহার দেওয়ার জন্য লেখককে ধন্যবাদ।

    Reply
  150. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    আর্টিকেলটিতে ইন্টারভিউ-দেওয়ার কৌশল গুলো তুলে ধরা হয়েছে যা চাকুরি প্রত্যাশিদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
    ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  151. চাকরির জন্য দরখাস্ত করার পর থেকে আমরা স্বপ্ন দেখতে শুরু করি চাকরিটা আমারই হবে। চাকরির বেতন দিয়ে এই করবো সেই করবো কত ধরণের স্বপ্ন কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার পর স্বপ্ন পূরণ হওয়ার পূর্বেই সকল স্বপ্নের মৃত্যু হয়ে যায়। বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। এরকম চিত্র প্রায় ঘরে ঘরেই দেখা যায়।ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। কনটেন্টি পড়ে আমি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছি।ধন্যবাদ লেখক কে সুন্দর এবং গুরুত্বপূর্ণ এই লেখাটির জন্য।

    Reply
  152. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অবলম্বন করলে চাকরি হওয়ার সম্ভবনা অনেকটা বেড়ে যায়। এই কন্টেন্টে খুব সুন্দর করে চাকরির ইন্টারভিউ এর সকল খুটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। নতুন চাকরি প্রত্যাশিত সকল ক্যান্ডিডেট এর জন্য কন্টেন্ট টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এতো সুন্দর একটি কন্টেন্ট লেখার জন্য। এমন তথ্যবহুল একটি কন্টেন্ট চাকরি প্রার্থীদের জন্য অত্যন্ত সহায়ক হবে।

    Reply
  153. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ অর্থাৎ আপনাকে ইন্টারভিউ তে টিকে তারপরই চাকরি পেতে হবে। এই ইন্টারভিউ দিলেই যে আপনার চাকরি হবে এমন নয়। কিন্তু কোন কৌশলে ইন্টারভিউ দিলে আপনার চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে সে বিষয়ে আলোকপাত করা হয়েছে। এই বিষয়গুলো যদি আপনি ফলো করতে পারেন তাহলে আপনি চাকরি ইন্টারভিউ তে ইনশাআল্লাহ ভালো করবেন।

    Reply
  154. চাকরির প্রথম ধাপ ইন্টারভিউ এ অংশগ্রহণ করা , সেক্ষেত্রে ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমন কোন নিশ্চয়তা নেই । তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে । এই আর্টিকেলটি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলি সম্পর্কে জানানো হয়েছে যা সকলের জানা উচিত , এমন উপকৃত কনটেন্টের জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই।

    Reply
  155. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।এই আর্টিকেলটিতে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হইয়েছে। এই আর্টিকেলটি চাকরি প্রার্থীদের জন্য অত্যন্ত জরুরী। ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  156. চাকরির সাথে ইন্টারভিউ শব্দটি অতপ্রত ভাবে জড়িত।চাকরি করতে হলে আমাদের ইন্টারভিউর সম্মুখীন হতে হয়।তবে ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে তা না।কিন্ত আমরা যদি উক্ত কনটেন্টটি মনোযোগ সহ পড়ি তাহলে চাকরি হওয়াটা অনেকটাই সহজ হবে ইনশাআল্লাহ।

    Reply
  157. বর্তমানে কম বেশি প্রতিটি চাকরির জন্য ভালো সার্টিফিকেট থাকার পাশাপাশি ইন্টারভিউ দিতে হয়। ইন্টারভিউ এর উপর ভিত্তি করে চাকরি হওয়া না হওয়া নির্ভর করে।তবে ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। কিন্তু উক্ত কন্টেন্টের কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।

    Reply
  158. চাকরির ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হল ইন্টারভিউ। সাধারণত কোম্পানিগুলিতে প্রার্থীদের উপস্থিত বুদ্ধি যাচাই করার লক্ষ্যে ইন্টারভিউ নেওয়া হয়। ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় যদি কিছু কৌশল অবলম্বন করা যায়, তাহলে একজন প্রার্থীর চাকরি লাভের সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এই আর্টিকেলটিতে লেখক সহজেই চাকরি লাভের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কিছু টিপস/কৌশল সম্পর্কে তুলে ধরেছেন, যার দ্বারা অনেক চাকরি প্রত্যাশী উপকৃত হবেন। ধন্যবাদ লেখককে এমন সুন্দর সময়োপযোগী কন্টেন্ট তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  159. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  160. বেকার জীবন অভিশপ্ত জীবন। বেকারত্ব থেকে মুক্তির জন্য সবাইকে চাকুরির ইন্টারভিউ দিতে হয়।এই ইন্টারভিউ প্রতিটি চাকুরী প্রত্যাশীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।ইন্টারভিউ বোর্ড এ যে কোন প্রার্থীকে সূক্ষ্ণভাবে বাছ বিচার করে নেওয়া হয়।প্রার্থীর কথা বার্তা আচার আচরণ সবকিছু লক্ষ করা হয়।প্রার্থীকে হতে হবে আর্তবিশ্বাসী। সুন্দর ও প্রাঞ্জল ভাষায় উপস্থাপন করতে হবে।কি প্রশ্ন করা হয়েছে তা বুঝে শুনে উত্তর দিতে। অতিরিক্ত পারদর্শিতা কিন্তু ক্ষতির কারণ ও হতে পারে।ইন্টারভিউ ভালোভাবে দেওয়া মানে বেকার জীবনের সমাপ্তি। তাই ইন্টারভিউতে যাওয়ার পূর্বে যদি সম্ভব হয় উল্লেখিত কন্টেন্টি দেখে যেতে পারেন।ইন্টারভিউতে কি কি করণীয় এবং কী কী বর্জনীয় তার সবই উল্লেখ আছে।

    Reply
  161. ইন্টারভিউ হল একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রক্রিয়া, যা প্রার্থীর দক্ষতা, জ্ঞান এবং ব্যক্তিত্ব মূল্যায়নে সহায়ক। সফল ইন্টারভিউয়ের জন্য সঠিক প্রস্তুতি, আত্মবিশ্বাস এবং প্রাসঙ্গিক অভিজ্ঞতা প্রদর্শন করা অপরিহার্য। প্রস্তুতি ভালো হলে, ইন্টারভিউ একটি সুযোগ হিসেবে পরিগণিত হয়, যা পেশাগত অগ্রগতির দ্বার উন্মুক্ত করতে পারে যার স্পষ্ট ধারণা পাওয়া এই কনটেন্ট টি থেকে।

    Reply
  162. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে এই কনটেন্টটি তে।উক্ত কনটেন্ট এ লেখক খুব সুন্দর ও সাবলীল ভাষায় ইন্টারভিউ বোর্ডে যাওয়ার আগে এবং পরের করনীয় সমূহ নিয়ে আলোচনা করেছেন।যা একজন চাকরি প্রার্থী ব্যক্তির জন্য গাইডলাইন হিসেবে কাজ করবে।

    Reply
  163. চাকরি ইন্টারভিউ হল চাকরি পাওয়ার পথে একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। কিছু কার্যকর কৌশল অনুসরণ করলে ইন্টারভিউয়ে সফল হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। এই কন্টেন্টে ইন্টারভিউ সম্পর্কিত সমস্ত দিক নিয়ে সুস্পষ্ট ও বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। নতুন চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য এটি এক অসাধারণ সম্পদ। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন একটি তথ্যবহুল কন্টেন্ট উপস্থাপন করার জন্য। এটি নিঃসন্দেহে চাকরি প্রার্থীদের জন্য অত্যন্ত সহায়ক হবে।

    Reply
  164. এই লেখনিতে কিভাবে একটি চাকরির ইন্টারভিউ দিতে হয় সেসকল কৌশল বর্ণনা করা হয়েছে। সকলেই পাশ করে চাকরির খোজে ছুটাছুটি শুরু করে। চাকরি পেয়ে সবাই প্রতিষ্ঠিত হতে চায় জীবনে। চাকরির সর্বপ্রথম ধাপ ইন্টারভিউ। এই ধাপে এসেই অনেকে বাদ পরে যায়। এমনভাবে বারবার ইন্টারভিউতে টিকতে না পেরে অনেকেই হতাশায় ভোগে। তাই তাদের একটি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার সঠিক নিয়ম ও কৌশল জানা উচিত যাতে তাদের চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। লেখককে এমন উপকারি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এই লেখনিতে তুলে ধরার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

    Reply
  165. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
    • চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে। তাদের চরিত্রে বেকারের সীলমোহর লেগে যায়।চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশল গুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।
      ধন্যবাদ লেখককে এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ সময়োপযোগী লেখা উপস্থাপন করার জন্য। আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি ইংশাআল্লহ চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

      Reply
  166. চাকরি মানে সোনার হরিণ । আর এই চাকরির প্রথম ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে তা অনুসরণ করলে অবশ্যই চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অধিকাংশ বেড়ে যায়। এই কনটেন্ট এর মাধ্যমে কিভাবে চাকরি পাওয়া যায় এবং ইন্টারভিউ দেওয়া যায় সমস্ত কৌশল দেখানো ও বর্ণনা দেওয়া হয়েছে।
    ধন্যবাদ লেখককে এত সুন্দর কনটেন্ট তৈরি করার জন্য। এটা আমাদের জন্য অনেক উপকারী

    Reply
  167. বর্তমান সময়ে একটা ভালো মানের চাকরি সোনার হরিণের মতো। চাকরির প্রথম পদক্ষেপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে আমাদের মনে অনেক স্বপ্ন থাকে। কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার পর অনেকেরই স্বপ্ন পূরণ হওয়ার পূর্বেই স্বপ্ন ভেঙে যায় -যখন প্রশ্ন কর্তা বলেন “ঠিক আছে আসুন, পরবর্তীতে জানানো হবে “। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে যেগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।

    Reply
  168. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। আর এতে করে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। আর এই আর্টিকেলে সুন্দরভাবে তা উপস্থাপন করা হয়েছে ।

    Reply
  169. চাকরি খুঁজতে গিয়ে অনেক সময় আমাদের ইন্টারভিউর সম্মুখীন হতে হয়। ইন্টারভিউ একটি চাকরির গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে তা কিন্তু নয়।অনেকে ইন্টারভিউ দিতে দিতে ক্লান্ত। ইন্টারভিউ দেওয়ার সঠিক নিয়ম ও কৌশল জানা থাকলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেক অংশে বেড়ে যায়। তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার আগে নিয়ম ও কৌশল সম্পর্কে জানা জরুরি। এই কনটেন্টটিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার নিয়ম ও কৌশল সম্পর্কে সহজ ও সাবলীল ভাষায় উপস্থাপন করা হয়েছে। এটি চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য অনেক উপকারী একটি কনটেন্ট। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ। আমাদেরকে এত সুন্দর একটা কনটেন্ট উপহার দেওয়া জন্য।

    Reply
  170. অনেক সময় ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রার্থী নার্ভাস হয়ে যায় এবং প্রশ্নকারীর কথা সম্পূর্ণ না শুনেই উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করে, যা ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি করতে পারে।ইন্টারভিউয়ের সময় হাসি-খুশি ও উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা এবং আত্মবিশ্বাস বজায় রাখার পরামর্শগুলো অত্যন্ত সহায়ক। ইন্টারভিউ বোর্ডে শুদ্ধ ভাষা ব্যবহার করা এবং সবজান্তা মনোভাব বর্জন করার পরামর্শগুলো বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। অনেক সময়ই প্রার্থী তাদের আঞ্চলিক ভাষা ব্যবহার করে ফেলেন, যা ইন্টারভিউয়ের সময় উপযুক্ত নয়। এছাড়াও, সবজান্তা মনোভাবের পরিবর্তে যদি কেউ নিজেকে প্রমাণের জন্য প্রস্তুত থাকে, তাহলে সেটা প্রার্থীর পক্ষে ভালো ফল বয়ে আনতে পারে।এছাড়া, পূর্বের কোম্পানির সম্পর্কে নেতিবাচক কিছু না বলা এবং বদ অভ্যাস পরিহার করার পরামর্শগুলোও অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।

    Reply
  171. আপনি একটা চাকরির জন্য কতটা যোগ্য তা নির্ধারণ করে আপনার ইন্টারভিউ। কিন্তু আমরা সবাই ইন্টারভিউ এর নাম শুনলেই ভয় পাই। চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে যা আমরা অবলম্বন করলে ইনশাআল্লাহ্ আল্লাহ্ চাইলে চাকরিটা আমাদের হয়ে যাবে।লেখক সুন্দর করে তার কন্টেন্ট এ ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল লিখেছেন।লেখক কে ধন্যবাদ।❤️

    Reply
  172. লেখক কে ধন্যবাদ জানাই এত সুন্দর করে সহজ ভাষায় চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য সঠিক গাইড লাইন তুলে ধরার জন্য । এমন তথ্যবহুল একটি কন্টেন্ট চাকরি প্রার্থীদের জন্য অত্যন্ত সহায়ক হবে |

    Reply
  173. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলোর উপর চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে নির্ভর করে। তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। কনটেন্টে বর্ণিত কৌশল গুলো জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যাবে।
    লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই এত সুন্দর করে সহজ ভাষায় চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য সঠিক গাইড লাইন তুলে ধরার জন্য ।

    Reply
  174. যেকোনো চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ হচ্ছে প্রধান বিষয়। ইন্টারভিউ সঠিক ভাবে দেওয়ার মাধ্যমে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই নির্ভরশীল।
    তাই কন্টেন্ট টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিভাবে সঠিক উপায়ে ইন্টারভিউ দিতে হবে। চাকরি প্রার্থীর আচরণ, পোশাক কি রকম হবে সব কিছু সুন্দরভাবে গুছিয়ে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। যেটি পড়ার মাধ্যমে অনেক বেশি উপকৃত হলাম।
    লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ এত উপকারী একটি কন্টেন্ট লিখার জন্য।

    Reply
  175. চাকরিপ্রত্যাশী সকলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি আর্টিকেল।
    ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।
    লেখককে অসংখ্য জাযাকাল্লাহু খইরন সময়োপযোগী একটি আর্টিকেল তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  176. ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে একজন ব্যক্তি চাকরি জীবনে প্রবেশ করে। ইন্টারভিউ দিলে যে চাকরি হবে এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অবলম্বন করলে একজন ব্যক্তির চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা বহুগুনে বেড়ে যায়। আলোচ্য কনটেন্টি নতুন ও পুরাতন চাকরিজীবীদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ধন্যবাদ লেখক কে এত সুন্দর কন্টেন্ট আমাদেরকে উপহার দেয়ার জন্য।

    Reply
  177. চাকরি করতে গেলে ইনটার্ভউ এর স্মুখিন
    হতে হয়। এ জন্য আমাদের আগে থেকেই প্রস্তুতি নিতে হয়। লেখকের এই কনন্টেটিতে খুব সুন্দর করে চাকরির ইনটার্ভউ এর জন্য কিছু টিপ্স দেয়া আছে। তাই আমাদের উচিত যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  178. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া, চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়। মা শা আল্লাহ, অনেক সুন্দর একটি কনটেন্ট। ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো এতটা সুন্দর, সাবলীল ও সহজ ভাষায় আমাদেরকে অবহিত করানোর জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  179. কর্মজীবনের প্রথম ধাপই হচ্ছে চাকরির জন্য ইন্টারভিউ দেয়া।লেখক এই কনন্টেইনে চাকরির ইন্টারভিউর খুটিনাটি বিষয় খুব সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন।যারা চাকরির প্রার্থী তাদের খুবই উপকার হবে।

    Reply
  180. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। এই ইন্টারভিউতে অধিকাংশ লোকবাদ যায় শুধুমাত্র নিয়ম-কানুন, আচরণ না জানার জন্য। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশল গুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এই আর্টিকেলটি ভালোভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি কনটেন্ট লেখার জন্য।

    Reply
  181. চাকরি প্রার্থী কতটা যোগ্য তা নির্ভর করে ইন্টারভিউ এর উপর। চাকরির ইন্টারভিউ যত স্মার্টলি দিতে পারবে এবং আত্মবিশ্বাসের সাথে দিতে পারবে তাহলেই তার জন্য আশাবাদ কিছু হবে। চাকরি মানে ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ মানে চাকরি। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।লেখককে অনেক ধন্যবাদ এত সুন্দর একটা কনটেন্ট উপহার দেওয়ার জন্য।

    Reply
  182. ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে একজন ব্যক্তি চাকরি জীবনে প্রবেশ করে। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অবলম্বন করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়।

    Reply
  183. চাকরি পাওয়ার প্রথম ধাপ হলো ইন্টারভিউ। অনেকেই আছেন যারা অনেকবার ইন্টারভিউ দিলেও কাঙ্ক্ষিত চাকরি পান না এবং হতাশ হয়ে পড়েন। কিন্তু তারা জানেন না যে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কার্যকরী পদ্ধতি আছে, যা জানলে ইন্টারভিউয়ের প্রস্তুতি ও প্রদানে অনেক সহজ হয়। ইন্টারভিউ ভালোভাবে দিতে পারলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়। তাই আমাদের ইন্টারভিউ দেওয়ার এই কার্যকরী পদ্ধতিগুলো জানা উচিত।

    উপরোক্ত বিষয়টি অত্যন্ত সুন্দরভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। তাই আমি মনে করি, প্রতিটি চাকরি প্রার্থীর জন্য এই পদ্ধতিগুলো জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

    Reply
  184. চাকরি জীবনের প্রথম ও গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় বিষন্ন হয়ে যায় যার কারনে চাকরি হওয়ার থাকলে হয় না। ইন্টারভিউ দেওয়ার ও কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।ইন্টারভিউ তে সঠিক উত্তর দেয়ার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো ম্যানার, কতটুকু বলতে হবে, কতটুকু বলা যাবেনা, কোন সিচুয়েশনে কিভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে কি করতে হবে এসব জানা। আবার কিছু প্রশ্নের উত্তর ডিপ্লোম্যাটিক্যালি দেয়া। এগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ ফেস করা যেমন সহজ হয়, তেমনি বাছাই হওয়ার ক্ষেত্রেও এগিয়ে থাকা যায়। খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলো তুলে ধরার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ,।

    Reply
  185. চাকরি মানেই ইন্টার্ভিউ। কন্টেন্টটি পড়ে চাকরিতে ইন্টার্ভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো জানতে পেরে উপকৃত হোলাম। এতে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।

    Reply
  186. অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে। তাদের চরিত্রে বেকারের সীলমোহর লেগে যায়। তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে যায়। ব্যক্তিত্ব বা মূল্যায়ন বলতে তাদের কিছুই থাকে না। এরকম চিত্র আমাদের দেশের প্রায় ঘরে ঘরেই দেখা যায়।
    চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    আর্টিকেলটি পড়ে আমি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পেরেছি। লেখক কে ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি আর্টিকেল লেখার জন্য।

    Reply
  187. 🍀🍀চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।
    .🍀🍀 এই কন্টেন্ট এ চাকরির ইন্টারভিউ এর কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারলাম।লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এরকম গুরত্বপূর্ণ আর্টিকেল লেখার জন্য❤️❤️

    Reply
  188. ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।
    উপরোক্ত বিষয়টি অত্যন্ত সুন্দরভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। তাই আমি মনে করি, প্রতিটি চাকরি প্রার্থীর জন্য এই পদ্ধতিগুলো জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
    লেখক কে ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি আর্টিকেল লেখার জন্য।

    Reply
  189. অনেকে চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়ে চাকরি হয় না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে যায়। চাকরি না পাওয়ার কারণে তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে যায়। বেকার তরুণদের ব্যক্তিত্ব বা মূল্যায়ন বলতে কিছুই থাকে না। এরকম চিত্র আমাদের দেশের প্রায় ঘরে ঘরেই দেখা যায়।
    চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    আর্টিকেলটি পড়ে আমি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পেরেছি। লেখক কে ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি আর্টিকেল লেখার জন্য।

    Reply
  190. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদের ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়।এমন অনেকেই আছেন যারা বারবার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয় না।যার কারণে তারা নিজেদের মনোবল হারিয়ে ফেলে, ডিপ্রেশনে ভোগে।কিন্তু আমাদের এটা মনে রাখতে হবে যে, ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমন কোনো নিশ্চয়তা নেই।কিন্তু ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে প্রশ্নকারীরা সহজেই আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারে এবং আপনার চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশেই বেড়ে যায়। আর্টিকেলটিতে এমনই কিছু কৌশল সম্পর্কে লেখক বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। আমি মনে করি ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে আমাদের সকলেরই এই কৌশলগুলো সম্পর্কে জানা উচিত। ধন্যবাদ লেখককে

    Reply
  191. চাকরি জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদের ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়।ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে প্রশ্নকারীরা সহজেই আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারে এবং আপনার চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশেই বেড়ে যায়।
    কন্টেন্টটিতে অনেক সুন্দর ভাবে ইন্টারভিউ সম্পর্কিত তথ্য তুলে ধরার জন্য লেখককে ধন্যবাদ।

    Reply
  192. চাকরি জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ।অনেক সময় ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রার্থী নার্ভাস হয়ে যায় এবং প্রশ্নকারীর কথা সম্পূর্ণ না শুনেই উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করে, যা ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি করতে পারে।ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে একজন ব্যক্তি চাকরি জীবনে প্রবেশ করে। এই উক্ত কন্টেন্টএ ইন্টারভিউ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।যারা পরাশোনা শেষ করে ইন্টারভিউ দিবে ভাবছে তাদের জনা কন্টেন্টটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

    Reply
  193. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। চাকরি জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। আর ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু সহজ কৌশল এখানে তুলে ধরা হয়েছে। যারা ইন্টারভিউ দিতে ভয় পায় তাদের জন্য লেখকের এই লেখাটি মনোবল বাড়ানোর একটি কৌশল। ধন্যবাদ অসাধারণ একটি কন্টেন্ট লেখার জন্য

    Reply
  194. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে এই লেখাটি অত্যন্ত তথ্যবহুল ও সহায়ক। এতে উল্লেখিত কৌশলগুলো, যেমন সঠিক প্রস্তুতি গ্রহণ, মনোযোগ সহকারে প্রশ্ন শোনা, এবং আত্মবিশ্বাস নিয়ে উত্তর দেওয়া, বাস্তবিক জীবনে ইন্টারভিউ সফল করার জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এছাড়া, নেতিবাচক মন্তব্য না করা এবং ভদ্রতা বজায় রাখার উপদেশগুলো কর্মজীবনে ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। এই লেখাটি পড়ে চাকরিপ্রার্থী ব্যক্তি ইন্টারভিউয়ে তাদের সফলতার সম্ভাবনা বৃদ্ধি করতে সক্ষম হবে।

    Reply
  195. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল নিয়ে লেখা চমৎকার একটি কনটেন্ট এটি।এতো প্রাঞ্জল ভাষায় লেখক বিষয়টি উপস্থাপন করেছেন যে লেখাটি পড়লে যে কারোরই ইন্টারভিউ ভীতি দূর হয়ে মনের ভিতর দৃঢ় আত্মবিশ্বাস তৈরি হবে।কনটেন্টে উল্লিখিত কৌশলগুলো অনুসরণ করলে যে কারোর ইন্টারভিউ মানসম্মত হতে বাধ্য।এমন একটি কনটেন্ট লেখার জন্য লেখককে অন্তরের অন্তঃস্থল থেকে কৃতজ্ঞতা জানাই।

    Reply
  196. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। বর্তমান চাকরি বাজার ইন্টারভিউ ছাড়া কল্পনাই করা যায় না। আমরা অনেকেই প্রতিনিয়ত ইন্টারভিউ দেই কিন্ত আশানুরূপ ফলাফল পাই না। ইন্টারভিউ দেয়ার আগে কিছু কৌশল অবলম্বন করলে অবশ্যই চাকরি পাওয়ার পথ অনেক সহজ হবে। আমাদের সকলের উচিত ইন্টারভিউ দেয়ার আগে এই কৌশল অবলম্বন করা।

    Reply
  197. চাকরির জন্য ইন্টারভিউ আবশ্যক। কিন্তু ইন্টারভিউর এমন কিছু কৌশল আছে যা অবলম্বন করলে চাকরী পাওয়াটা অনেক সহজ হয়ে যায় ।এই আর্টিকেলে সেই সব কৌশল নিয়ে আলোচনা করা হলো।

    Reply
  198. চাকরির ইন্টারভিউ সম্পর্কিত খুব সুন্দর একটি কনটেন্ট। চাকরি প্রত্যাশীদের ইন্টারভিউ পূর্ব প্রস্তুতির জন্য এই কনটেন্ট টি খুবই উপকারী হবে।

    Reply
  199. চাকরির ইন্টারভিউয়ের জন্য সকলেরই কিছু পুর্বপ্রস্তুতি নেয়া উচিত।এই কন্টেন্টিতে চাকরির পুর্বপ্রস্তুতি সম্পর্কে সুন্দরভাবে বিশ্লেষন করা হয়েছে।

    Reply
  200. আমাদের দেশে এ রকম বেকারের সংখ্যা অনেক যাদের ইন্টারভিউ দিতে দিতে বলতে গেলে জুতার তলা ক্ষয় হয়ে যায় তবু চাকরি নামক সোনার হরিণটার দেখা মেলেনা । চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। এখানে সেই কৌশলগুলি বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরার জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ। কনটেন্ট টি তে খুব সুন্দর করে বলা হয়েছে ইন্টার ভিউ এর পূর্ব প্রস্ততি সম্পর্কে যেটা চাকরি প্রার্থীদের অনেক উপকারে আসবে ।

    Reply
  201. চাকরির প্রয়োজনীয়তা কে সুদৃঢ় করতে হবে। বাড়ী তৈরির সময় যেমন ইটগুলো শক্তপোক্ত না হলে বাড়ীটা মজবুত হয় না, ঠিক তেমনি চাকরির প্রয়োজনীয়তা দৃঢ় না হলে চাকরি পাওয়া যায় না, ভবিষ্যতের ভীত মজবুত হয় না।জীবনে লক্ষ্য তৈরি করুন।আপনাকে চাকরি পেতেই হবে- এটা নিশ্চয় জেনে গেছেন। তাহলে এবারে প্রিপারেশেন নিন।ফাইনাল ইন্টারভিউ এর আগে নিজেই নিজের ইন্টারভিউ নিন।আত্মবিশ্বাস আর আশা এই দুটোই যদি খুব জোরালো হয় আর তার সাথে পরিশ্রমও যদি থাকে, কারো ক্ষমতা নেই আপনাকে আটকানো।ইন্টারভিউ এর জাস্ট কিছুদিন আগে কি করা উচিৎ তা জেনে নিন।ইন্টারভিউ এর সময়ে কি করা উচিৎ,সেইসাথে ইন্টারভিউ এর সময়ে কি কি করা উচিৎ নয়।

    Reply
  202. ইন্টারভিউ দেয়ার কিছু কৌশল রয়েছে ।যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন একজন ব্যক্তি র সম্পর্কে যিনি ইন্টারভিউ দিতে আসেন। এজন্য ইন্টারভিউ প্রস্তুতি, ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের পূর্বে এবং পরে করণীয় কি কি তা জানতে হবে

    Reply
  203. চাকরির গুরুত্বপূর্ণ ধাপ এর মধ্যে ইন্টারভিউ একটি অন্যতম প্রধান অংশ। তবে ইন্টারভিউ দেয়ার জন্য অনেক কৌশল রয়েছে যা অনেকের অজানা।
    লেখক এই কন্টেন্ট টি তে অনেক সুন্দর করে তা উপস্থাপন করেছেন। যা অনেকেরই উপকারে আসবে চাকরি ক্ষেত্রে। লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ এত সুন্দর তথ্য আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  204. চাকরির জন্য আমাদের মাঝে মাঝেই ইন্টারভিউ-এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি পাচ্ছেন না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে। তাদের চরিত্রে বেকারের সীলমোহর লেগে যায়। তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে যায়। ব্যক্তিত্ব বা মূল্যায়ন বলতে কিছুই থাকে না।
    কনটেন্ট-এ লেখক চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কয়েকটি মূল্যবান কৌশল সম্পর্কে আলোচনা করেছেন যা একজন প্রার্থীর চাকরি পেতে সহায়ক হবে বলে আমি মনে করি।

    Reply
  205. চাকরির কয়েকটি ধাপের মধ্যে ইন্টারভিউ ধাপটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বা বলা যায় চাকরির প্রাণ।এই ধাপে ভালো করতে পারলেই তবেই চাকরি প্রার্থীর চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। জীবনে প্রথম কোনো কাজ করতে যাওয়া মানেই নার্ভাসনেস,কথায় আড়ষ্টতা আসা,অসহায় অনুভব করা এটা স্বাভাবিক আসবেই ,আর চাকরির ইন্টারভিউ হলে তো কথাই নেই।তাই যদি ইন্টারভিউ এর ক্ষেত্রে কৌশলী হই, তাহলে সফলতার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে।
    উপরিউক্ত কনটেন্টটি খুবইগুরুত্বপূর্ণ চাকরি প্রার্থীদের জন্য।

    Reply
  206. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই।ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় কিছু ভুলের কারণে চাকরি হয় না।খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে।তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে ভালো প্রস্তুতি প্রয়োজন।ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।লেখক এ কন্টেন্টটিতে সে কৌশল নিয়ে আলোচনা করেছেন। ধন্যবাদ লেখককে এরকম একটা কন্টেন্ট শেয়ার করার জন্য। ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  207. আসসালামু আলাইকুম,
    “চাকরির ইন্টারভিউ” চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে একটি বিশেষ ধাপ।চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই নিজের প্রতি দৃঢ় মনোবল ও আত্মবিশ্বাস থাকতে হবে। ইইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে সেগুলো অবলম্বন করা উচিত, যাতে প্রশ্নকারীরা প্রার্থীদের উপর ইতিবাচক মনোভাব পোষণ করে। এই আর্টিকেলটি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল নিয়ে লেখা। লেখকের এই আর্টিকেলটি চাকরি প্রার্থীদের জন্য অনেক উপকারী ভুমিকা রাখবে,ইনশাআল্লাহ।

    Reply
  208. চাকরি পেতে হলে ইন্টারভিউ দেয়ার কোনই বিকল্প নেই। সঠিকভাবে ইন্টারভিউ না দেয়ার ফলে বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও অনেকের চাকরি হয়না। চাকরির ইন্টারভিউতে টিকতে হলে বেশ কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়। এর মধ্যে অতি জরুরি হলো নিজের পূর্ব প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে নেতিবাচক কথা না বলা কেননা এতে করে ইন্টারভিউ গ্রহণকারিদের মধ্যে প্রার্থী সম্পর্কে খারাপ ধারনা তৈরি হয়। এছাড়া ঘাবড়ে না গিয়ে আত্মবিশ্বাস ধরে রেখে সকল প্রশ্নের জবাব দিতে পারাটাও জরুরি। একই সাথে সবজান্তা মনভাব পরিহার করতে হবে৷ এছাড়াও উপরের আর্টিকেলটি পড়লে ইন্টারভিউ দেয়ার নানা কৌশল সম্পর্কে জানা যাবে।

    Reply
  209. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। কিন্তুু বার বার খুব ভালো ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয় না, এমন অনেক বেকার মানুষ আছে। এর একটা কারন ইন্টারভিউ কৌশল না জানা। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশল গুলো ফলো করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায়। এইজন্যই ইন্টারভিউ দেওয়ার আগে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল গুলো জানা উচিত। এই আর্টিকেলটিতে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক জানা অজানা বিষয় রয়েছে। আর্টিকেলটি পড়ে খুবই উপকৃত হলাম।

    Reply
  210. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় কিছু গুরুত্বপূর্ণ কৌশল মেনে চলা উচিত। প্রথমত, ইন্টারভিউয়ের আগে ভালোভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে —কোম্পানির সম্পর্কে জানতে হবে। দ্বিতীয়ত, নিজের যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সম্পর্কে আত্মবিশ্বাসী থাকতে হবে এবং স্পষ্টভাবে নিজেকে উপস্থাপন করতে হবে । তৃতীয়ত, প্রফেশনাল আচরণ বজায় রাখতে হবে —সঠিক সময়ের মধ্যে উপস্থিত হতে হবে , ফর্মাল পোশাক পরিধান করতে হবে এবং বডি ল্যাঙ্গুয়েজে সচেতন থাকা জরুরি । এভাবে ইন্টারভিউতে সফল হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে। ধন্যবাদ লেখককে সুন্দর একটি কন্টেন্ট উপহার দেওয়ার জন্য।

    Reply
  211. যেকোনো প্রতিষ্ঠানে চাকরি পাওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো ইন্টারভিউ। এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তারা হতাশ হয়ে পড়ে।
    আবার ভালো ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে আত্নবিশ্বাসী হতে হবে এবং ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য কিছু কৌশল অনুসরণ করতে হবে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়, সে সকল কৌশল সমূহ সুন্দরভাবে তুলে ধরার জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  212. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে।তবে আত্নবিশ্বাসী হতে হবে এবং ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য কিছু কৌশল অনুসরণ করতে হবে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়, সে সকল কৌশল সমূহ সুন্দরভাবে তুলে ধরার জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  213. চাকরি জীবনের প্রথম ও গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় বিষন্ন হয়ে যায় যার কারনে চাকরি হওয়ার থাকলে হয় না। ইন্টারভিউ দেওয়ার ও কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।ইন্টারভিউ তে সঠিক উত্তর দেয়ার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হলো ম্যানার, কতটুকু বলতে হবে, কতটুকু বলা যাবেনা, কোন সিচুয়েশনে কিভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে কি করতে হবে এসব জানা।তাই আমাদের ইন্টারভিউ দেওয়ার এই কার্যকরী পদ্ধতিগুলো জানা উচিত।

    উপরোক্ত বিষয়টি অত্যন্ত সুন্দরভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। তাই আমি মনে করি, প্রতিটি চাকরি প্রার্থীর জন্য এই পদ্ধতিগুলো জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ

    Reply
  214. সহজ সাবলীল ভাষায় ইন্টারভিউ এর সময়ে করনীয় বর্জনীয় গুলো তুলে ধরা হয়েছে। চাকরিপ্রার্থীদের খুবই কাজে লাগবে আশা করি।

    Reply
  215. প্রতিটি চাকরীর ক্ষেত্রেই ইন্টারভিউ বোর্ডকে ফেইস করতে হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে চাকরী প্রার্থীগণ চাকরী পেতে ব্যর্থ হন ইন্টারভিউতে যথাযথ প্রিপারেশন না নেয়ার কারণে। এছাড়াও আরো অনেক বিষয় থাকে যেগুলো ফলো করলে চাকরী পাওয়ার চান্স আরো অনেক বেড়ে যায় । উপরোক্ত কন্টেন্টে চাকরীর ইন্টারভিউতে ভালো করার বেশ কিছু টিপস এন্ড ট্রিকস শেয়ার করা হয়েছে, যেগুলো ফলো করলে আশা করা যায় চাকরী প্রার্থীগণ অনেকাংশেই সফল হতে পারবেন।

    Reply
  216. সরকারি বা বেসরকারি চাকরি হোক কিংবা ছোট বা বড় চাকরি হোক সকল চাকরির জন্য আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। এজন্য চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে জানতে হয়। এই কন্টেন্টটি পড়ার মাধ্যমে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে জানা যাবে। ইনশাআল্লাহ।

    Reply
  217. একটি সম্মানজনক চাকরি সবাই প্রত্যাশা করে। তাই ভালো চাকরির জন্য মার্জিত এবং দক্ষতার সাথে ইন্টারভিউ দওয়ার এর বিকল্প নেই। তবে তার জন্য কিছু কৌশলও অবলম্বন করতে হয়। যা এই কন্টেন্ট থেকে আমরা সহজেই জেনে কাজে লাগাতে পারি। লেখনকে অসংখ্য ধন্যবাদ ইন্টারভিউ এর সুকৌশল গুলো শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  218. আমরা কম বেশি মানুষ চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার প্রস্তুতি নিয়ে থাকে। কিন্তু আমরা সঠিকভাবে তা সম্পর্কে অবগত নই। এই পোস্টটির মাধ্যমে চাকরির ইন্টারভিউ সম্পর্কে ধারণা নিতে পারলাম। ধন্যবাদ লেখক কে।ইনশাল্লাহ এটি পরবর্তী সময়ে কাজে লাগবে।

    Reply
  219. CV ড্রপ করছি ইন্টারভিউ কার্ড আসছে ইন্টারভিউ দিচ্ছি কিন্তু চাকরি হচ্ছে না। চাকরি হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা একটি ইন্টারভিউয়ের উপর নির্ভর করে। তাহলে! আমাদের ভালো একটা ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি এবং কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হবে । যেমন- ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রবেশের পূর্বে স্মার্ট হওয়া, মনোযোগ সহকারে প্রশ্নকর্তার প্রশ্ন শোনা এবং শুদ্ধ ভাষায় উত্তর দেওয়া , নার্ভাস না হওয়া, উপস্থিত বুদ্ধি ব্যবহার, উৎফুল্ল ভাব, আত্মবিশ্বাস রাখা, মার্জিত আচরণ করা,পূর্বের কোম্পানী সম্পর্কে নেতিবাচক কিছু না বলা ইত্যাদি ইত্যদি। বিষয় গুলোর দিকে নজর দিলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেক খানিক বেড়ে যায়। তাহলে আমরা বলতে পারি যে, একটি চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরিটা হবেই, এমন কিন্তু নিশ্চয়তা নেই। তবে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায় বা যাবে। ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে জানা উচিত। কনটেন্টটিতে লেখক সুন্দর এবং সাবলিল ভাষায় চাকরির ইন্টারভিউ সম্পর্কে আলোচনা করেছেন। এজন্য লেখককে অনেক ধন্যবাদ।

    Reply
  220. কনটেন্টটিতে কিভাবে চাকরির ইন্টারভিউ প্রদান করবে তা নিয়ে বলা হয়েছে। আমরা অনেকে চাকরির ইন্টারভিউ নিয়ম জানিনা যার দরুন আমাদের কাঙ্খিত চাকরিটা আমরা অনেক অংশে পাই না। এই কনটেন্ট টি আমাদের ভুল গুলো শুধরে আমাদেরকে উপযোগী ইন্টারভিউ প্রদানে আমাদের সাহায্য করবে।

    Reply
  221. যেকোন চাকরিতে একজন প্রার্থীকে নিয়োগে আগে ইন্টারভিউ সম্মুখীন হতে হয়।অর্থাৎ চাকরি মানেই ইন্টারভিউ।এজন্য কিছু কৌশল ও নিয়মনীতি অনুসরন করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।এ আর্টিকেলটিতে খুব সুন্দর ভাবে গুছিয়ে এবং খুটিনাটি জিনিসের বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে,যার মাধ্যমে অনেক অজানা বিষয় সম্পর্কে ও জানতে পারবেন।

    Reply
  222. চাকরি পাওয়াটা বর্তমান সময়ে খুব কঠিন একটি সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।আর এই চাকরি পাওয়ার গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হল ইন্টারভিউ।তবে ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি পাওয়া যায় এমনটা নয়।অনেক ছোট খাট ভুলের কারণে ভালো একটি চাকরি হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে। এই কন্টেন্টটি পড়লে একটি সফল ইন্টারভিউ কিভাবে দিতে হবে তা জানা যাবে।ইন্টারভিউ এর আগে করনীয়, ইন্টারভিউ এর সময় করনীয় কাজ ও ভুল ত্রুটি গুলো এখানে দেওয়া আছে। তাই ভালো চাকরির জন্য মার্জিত এবং দক্ষতার সাথে ইন্টারভিউ দওয়ার এর বিকল্প নেই। তবে তার জন্য কিছু কৌশলও অবলম্বন করতে হয়। যা এই কন্টেন্ট থেকে আমরা সহজেই জেনে কাজে লাগাতে পারি। লেখককে আন্তরিক ধন্যবাদ ইন্টারভিউ এর সুকৌশল গুলো শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  223. চাকরি এখন সোনার হরিণ।প্রতিযোগীতামুলক এই সময়ে আপনি যদি নিজেকে প্রতিনিয়ত চাকরির জন্য প্রস্তুত না করেন তাহলে পিছিয়ে পড়বেন।তাই নিজেকে দক্ষ করে তোলার জন্য আপনাকে অবশ্যই কিছু দিক সম্পর্কে সচেতন হতে হবে যার মধ্যে ইন্টারভিউ অন্যতম।আর্টিকেলটিতে এই সম্পর্কে সুন্দর ভাবে দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

    Reply
  224. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। এই কন্টেন্ট এ ইন্টারভিউ দেয়ার কৌশল সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। ধন্যবাদ লেখককে এত সুন্দর কন্টেন্ট এর জন্য

    Reply
  225. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল নিয়ে লেখাটিতে আলোচনা করা হয়েছে। লেখাটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  226. একটা চাক‌রিজী‌বি মানু‌ষের জন‌্য ইন্টার‌ভিউ একটা গুরুত্বপ‌ূর্ন বিষয়। একটা ইন্টার‌ভিউ এর মাধ‌্যমে একজন চাক‌রি প্রত‌্যাশীদের চাক‌রি নি‌শ্চিত হ‌তে পা‌রে। এই আর্টিকে‌লের মাধ‌্যমে লেখক খুব সুন্দর করে ইন্টার‌ভিউ সম্প‌কর্্ আলোচনা ক‌রে‌ছেন যা আমা‌দের সবার কা‌জে্ আস‌বে।

    Reply
  227. Interview is a very important step in every job. A good interview multiplies the chances of getting the job. Anyone can prepare well for job interviews by reading this report.

    Reply
  228. চাকরি মনে ইন্টারভিউ।এই কনটেন্টিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার প্রস্তুতি ও কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  229. চাকরিক্ষেত্রে অপরিহার্য এবং গুরুত্বপূর্ণ একটা সাইট হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে কোন ব্যক্তিকে উক্ত প্রতিষ্ঠানের যোগ্য কর্মচারী হবে কিনা সেটা বুঝা যায়।তার মনোভাব,সহনশীলতা,সময়ানুবর্তিতা সম্পর্কে জানা যায়।একেক প্রতিষ্ঠান অবশ্য একেকভাবে ইন্টারভিউ গ্রহণ করে থাকে।তাই ভয় না পেয়ে কিভাবে অতি সহজে ইন্টারভিউ এ নিজেকে যোগ্য কর্মচারী হিসেবে প্রমাণ করবেন তা জানার জন্য কন্টেন্ট টি পড়া অতীব গুরুত্বপূর্ণ।

    Reply
  230. ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।
    আর্টিকেলটি চাকরি প্রার্থীদের জন্য খুবই উপকারে আসবে।তারা ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবে। এবং এই কৌশল গুলো মেনে চললে সফল হতে পারবে। ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  231. আমাদের দেশে বেকারত্বের হার বেশি কারন বেকারত্ব সমস্যা দূর করতে হলে লাগবে চাকুরী, আর চাকুরী পেতে হলে দিতে হয় ইন্টারভিউ, ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল না জেনে অনেকেই চাকুরী না পেয়ে ডিপ্রেশনে থাকে তাদেরকে বলবো ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল জানার জন্য এই কনটেন্ট টি অবশ্যই পড়বেন সবাই, উপকৃত হবেন ইনশাআল্লাহ।

    Reply
  232. ‘ইন্টারভিউ ‘ চাকরিরক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ । ইন্টারভিউ এর কিছু সঠিক কৌশল জানা থাকলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশেই বেড়ে যায় । তাই সবার এই কৌশল গুলো জানা খুবই জরুরি ।
    অসংখ্য ধন্যবাদ লেখককে এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ কনটেন্ট লেখার জন্য ।

    Reply
  233. সাধারণত প্রায় মানুষেরই পড়ালেখা করার পর ইচ্ছে থাকে একটা ভালো পজিশনে চাকরি করার।আর চাকরি পাওয়ার প্রথম ধাপ হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে ব্যক্তির যোগ্যতা ও ব্যক্তিত্বের পরীক্ষা করা হয়।অনেকেই ইন্টারভিউতে টিকতে না পেরে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়ে।তাই সকলের উচিত ইন্টারভিউ এর পূর্বে সঠিকভাবে প্রস্তুতি নেয়া।আর ইন্টারভিউতে সঠিক ও সুন্দরভাবে নিজেকে উপস্থাপন করা।এই আর্টিকেলে ইন্টারভিউ এর পূর্বে কিভাবে প্রস্তুতি নিবে,কিভাবে নিজেকে ইন্টারভিউ এর জন্য যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলবে তার কিছু কৌশল ও নিয়ম দেয়া রয়েছে।যা প্রতিটি চাকরিপ্রার্থী ব্যক্তির অনেক কাজে আসবে।

    Reply
  234. এই লেখনিতে কিভাবে একটি চাকরির ইন্টারভিউ দিতে হয় সেসকল কৌশল বর্ণনা করা হয়েছে। চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। এই কন্টেন্ট এ ইন্টারভিউ দেয়ার কৌশল সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। ধন্যবাদ লেখককে এত সুন্দর কন্টেন্ট এর জন্যসকলেই পাশ করে চাকরির খোজে ছুটাছুটি শুরু করে। চাকরি পেয়ে সবাই প্রতিষ্ঠিত হতে চায় জীবনে।

    Reply
  235. ইন্টারভিউ অনেক জরুরি চাকরিক্ষেত্রে। ইন্টারভিউ ছাড়া চাকরি হওয়া অনেক কঠিন এই কৌশলগুলো মেনে চললে আসলেই সম্ভবনা থাকবে। অনেক উপকারী।

    Reply
  236. চাকুরির জন্য আমরা ইন্টারভিউ দেই,ইন্টারভিউ হল চাকরি পাওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। চাকরি করতে হলে প্রথমে ইন্টারভিউ সম্মুখীন হতেই হবে। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে খুব নার্ভাস হয়ে পড়ি। ইন্টারভিউ দেওয়ার কতগুলো কৌশল আছে এই কৌশলগুলো যদি জানা থাকে তাহলে আমরা খুব সহজে একটা ইন্টারভিউ ফেস করতে পারি। ইন্টারভিউ বোর্ডে নিজেকে খুব সাবলীল এবং স্মার্ট ভাব উপস্থাপন করতে হয়। ইন্টারভিউ কেমন হবে আসলে নির্ভর করে নিয়োগ কারী প্রতিষ্ঠানে কর্তৃপক্ষের উপর। আমাদের দেশে শিক্ষিত লোকের সংখ্যা বেশি কিন্তু অথত অথচ তারা বেকার কারণ হলো তারা চাকরি দিতে গিয়ে ঠিকমতো ইন্টারভিউ কৌশল গুলো অবলম্বন করতে পারে না এবং ইন্টারভিউতে সঠিকভাবে দিতে পারেনা। ইন্টারভিউ দেওয়ার কতগুলো কৌশল আছে, কৌশল গুলো অবলম্বন করলে একজন প্রার্থী সহজেই চাকরি পেতে পারেন এই কনটেন্টিতে লেখক খুব সুন্দর ভাবে চাকরির ইন্টারভিউ কতগুলো কৌশল সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন যেমন ইন্টারভিউ এর পুব প্রস্তুতি, সব কিছু গুছিয়ে রাখা,কাগজপত্র থেকে ড্রেস সব কিছু,মনোযোগ দিয়ে ইন্টারভিউ এর স্যার কথা শুনা থেকে শুরু করে নিজেকে প্রেজেন্টটেবল রাখা,এই কন্টেন্ট টি আপনারা যারা ইন্টারভিউ ফেস করবেন তাদের জন্য আশা করি আপনারা এই কন্টেন্ট পরে উপকৃত হবেন।

    Reply
  237. চাকরি পাবার ক্ষেত্রে প্রধান ধাপ হল ইন্টার্ভিউ দেয়া। ইন্টার্ভিউ দেয়ার স্মার্ট কৌশল গুল জানা থাকলে চাকরি পাওয়া সহজ হয় । তাই উপরোক্ত আর্টিকেলটি পরলে এ বিষয়ে উপক্রিত হতে পারে সবাই ।

    Reply
  238. ইন্টারভিউ চাকুরী প্রত্যাশীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। চাকরি করতে চাইলে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতেই হবে। এই ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে যা অবলম্বন করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এই আর্টিকেলটি পড়লে আমরা এই কৌশলগুলো সম্পর্কে জানতে পারবো।

    Reply
  239. লেখাপড়া শেষ হোক বা না হোক , আমাদের জীবন একটা কথাই বার বার মনের মধ্যে তোলপাড় করে ‘ আমি চাকরি করবো , কিন্তু চাকরি পাওয়া কি এতটাই সহজ। সে চাকরি করতে গেলে ইন্টারভিউ দিতে হয় , আর চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। সেই ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এই কনটেন্টটিতে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  240. আমাদের বেসির ভাগ মানুষকেই কম বেসি চাকরির ইনটারভিউ দিতে হয়। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। কিন্তু আমরা জীবনের অনেক মূল্যবান সময় শেষ করে ফেলি ভুল নিয়মে ইনটারভিউ দিয়ে চাকরি না পাওয়ার কারনে। তাই লেখকের এই কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যাবে। এবং বেকারত্য অনেক কমে যাবে। তাই সকলেরই ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে এই কৌশল সম্পর্কে জানা উচিত।

    Reply
  241. কনটেন্টে বর্ণিত কৌশল গুলো জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যাবে।সবার জানা উচিত। লেখক কে ধন্যবাদ জানাই এত সুন্দর করে সহজ ভাষায় চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য সঠিক গাইড লাইন তুলে ধরা র জন্য।

    Reply
  242. মাশাল্লাহ, কনটেন্টটিতে খুব চমৎকার ভাবে চাকরির ইন্টারভিউ দিতে কি কি কৌশল জানতে হয় এ বিষয় এ অনেক সুন্দর ভাবে বুঝানো হয়েছে। ধন্যবাদ লেখককে এতো সুন্দর কনটেন্ট উপহার দেওয়ার জন্য।

    Reply
  243. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই।খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না ফলে একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে,বেকার হিসেবে তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে যায়। এরকম চিত্র আমাদের দেশের প্রায় ঘরে ঘরেই দেখা যায়। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে, যেগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  244. চাকরি করতে চাইলে ইন্টারভিউ দিতেই হবে,আর ইন্টারভিউ দিলেই জে চাকরি হবে এমন ধারণা করা একেবারেই ভুল।কত শিক্ষিত মানুষ বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও বেকার ঘুরে বেড়ায়।তারা চাকরির আসায় তাদের জীবনের অনেকটা সময় ব্যায় করে ফেলে একটা সময় তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে পড়ে। তাদের কোন মূল্যায়ন থাকে না। তাই ইন্টারভিউ দিতে হলে নিজেকে খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করতে হবে এবং ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল গুলো অবলম্বন করতে হবে।
    এই কনন্টেটী থেকে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার অনেক কৌশল জানার বিষয় চমৎকার ভাবে উল্লেখ করা হয়েছে ইনশাআল্লাহ।👍

    Reply
  245. ইন্টারভিউ ছাড়া চাকরি হয়না। অনেকে আছেন যারা একাধিক বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরির মুখ দেখেননি। এতে বোঝা যায় শুধু ইন্টারভিউ দিলেই হবে তার জন্য ও কোনো কৌশল অবলম্বন করতে হবে। আর এ কৌশল গুলো জানা থাকলে অনেক টা সফলতা আশা করা যায়। তাহলে সেই কৌশল কি? জানতে হলে এই লেখাটি পড়তে হবে।

    Reply
  246. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই।আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন। এতে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বাড়বে।আর্টিকেলটি উপকারী যারা চাকরি করতে চায়।

    Reply
  247. মাশাল্লাহ, কন্টেন্টটিতে খুব চমৎকার ভাবে চাকরির ইন্টারভিউ দিতে কি কি কৌশল সম্পর্কে জানতে হয় তা ফুটিয়ে তুলেছেন লেখক। কন্টেন্টে বর্ণিত বিষয় গুলো জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যাবে।এই আর্টিকেলটি পড়লে আমরা এই কৌশল গুলো সম্পর্কে জানতে পারব।লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এতো সুন্দর একটি কন্টেন্ট উপহার দেয়ার জন্য।

    Reply
  248. ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে যা এই কনটেন্টেখুবভালো ভাবে দেওয়া আছে । যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।

    Reply
  249. চাকরি করতে চাইলে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতেই হবে। এই ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে যা অবলম্বন করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এই আর্টিকেলটি পড়লে আমরা এই কৌশলগুলো সম্পর্কে জানতে পারবো।

    Reply
  250. চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।ইন্টারভিউ তে ভাল করার জন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়,যার ফলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।এই কনটেন্ট টি তে ইন্টারভিউ এর কৌশল গুলো সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।ধন্যবাদ লেখক কে।

    Reply
  251. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। কৌশলগুলো অবলম্বন করলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে, যা সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। তাই আমাদের ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি একটি তথ্যবহুল কন্টেন্ট চাকরি প্রার্থীদের জন্য অত্যন্ত সহায়ক হবে বলে মনে করছি। লেখককে ধন্যবাদ চমৎকার এই কনটেন্ট টি আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  252. লেখাপড়া শেষ করার পর সবাই চায় চাকরি করতে। সেই চাকরি দেওয়ার জন্য দিতে হয় ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য কিছু কিছু কৌশল জানতে হয় তাহলে চাকরি পাওয়ার সহজ হয়ে যায়। ইন্টারভিউ কিছু কিছু কৌশল যদি জানা থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই চাকরির পথে সাফল্য লাভ করবেন। উপরের কনটেন্টটি খুবই উপকারী ।লেখককে অনেক অনেক ধন্যবাদ এরকম একটা কনটেন্ট শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  253. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। উপরোক্ত কন্টেন্টটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এই কন্টেন্টটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  254. চাকরি করতে হলে প্রথমে ইন্টারভিউ দিতে হয় আর ইন্টারভিউ এর বিভিন্ন কৌশল ও নিয়ম কানুন খুব সুন্দর ভাবে এই আর্টিকেলে দেওয়া হয়েছে। আমার মনে হয় যাদের চাকরির জন্য বিভিন্ন জায়গায় ইন্টারভিউ দিতে হয় তাদের এই আর্টিকেলটা পড়া খুবই জরুরী।

    Reply
  255. চাকুরি পাওয়ার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও অনেকের চাকুরিতে নাম আসে না। ইন্টারভিউ ভালো হলে চাকুরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। এগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেয়া সহজ হবে। কন্টেন্টটি পড়ে চাকুরির ইন্টারভিউ দেওয়ার সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য জানতে পারলাম। এত সুন্দর একটি কন্টেন্ট উপহার দেওয়ার জন্য
    লেখককে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

    Reply
  256. চাকরি করার ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ। এই ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আছে যা অবলম্বন করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আর্টিকেলটিতে এই কৌশলগুলো সম্পর্কে বলা হয়েছে ।

    Reply
  257. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল অবলম্বন করলে চাকরি হওয়ার সম্ভবনা অনেকটা বেড়ে যায়।কৌশল জেনে নিজেকে প্রস্তুত করতে পারলে আমরা ইন্টারভিউতে সফলভাবে উত্তীর্ণ হতে পারবো।এই আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  258. আলহামদুলিল্লাহ কনটেন্টটি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য অনেক উপকারী।অনিকে প্রথমবার চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার ক্ষেত্রে অনেক অনভিজ্ঞতার শিকার হয় । এজন্য এই কনটেন্টটি অনেক উপকারী তাদের অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি করবে এবং চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে। লেখককে অনেক ধন্যবাদ এমন একটি কনটেন্ট উপস্থাপনের জন্য।

    Reply
    • মা শা আল্লাহ, অনেক সুন্দর একটি কনটেন্ট। লেখাপড়া শেষ এ সবাই চায় চাকরি।
      আমাদের জীবন একটা কথাই বার বার মনের মধ্যে আসে করে ‘ আমি চাকরি করবো , কিন্তু চাকরি পাওয়া কি এতটাই সহজ।অনেকে বার বার চাকরি জন্য ইন্টারভিউ দিয়ে থাকে কিন্তু বার বার নিরাস হয়।ইন্টারভিউ ছাড়া চাকরি হয়না।ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। ইন্টারভিউ তে ভাল করার জন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়,তাহলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে যায়। উক্ত কনটেন্ট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
      লেখককে ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি কনটেন্ট শেয়ার করার জন্য শেয়ার করার জন্য।

      Reply
  259. ইন্টারভিউ হচ্ছে চাকরি পাওয়ার সবচেয়ে প্রথম ধাপ। একটি ভাল চাকরি পেতে হলে ভালোভাবে ইন্টারভিউ দেয়া খুব জরুরি। ইন্টারভিউ দেয়ার কিছু কৌশল আছে। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যেমন:ইন্টারভিউ এর পূর্বে প্রস্তুতি গ্রহণ করা।
    চাকরির ইন্টারভিউ এর প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে স্টাডি করা।
    মনোযোগ সহকারে প্রশ্ন শোনা ও সহজভাবে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করা।
    আত্মবিশ্বাস নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দেওয়া।
    চ্যালেঞ্জ বা তর্ক না করা।
    রাগান্বিত বা বিরক্ত না হওয়া।
    শুদ্ধ ভাষা ব্যবহার করা।
    ঘাবড়ানো বা নার্ভাস না হওয়া।
    ভদ্রতা বজায় রাখা।
    পূর্বের কোম্পানী সম্পর্কে নেতিবাচক কিছু না বলা।
    প্রয়োজনে উপস্থিত বুদ্ধি ব্যবহার করা।
    সবজান্তা মনোভাব বর্জন করা।
    হাসি-খুশি ও উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা করা।
    এই কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যাবে।

    Reply
  260. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। যে কোনো চাকরি পাওয়ার পূর্বশর্ত হলো ইন্টারভিউ অতিক্রম করা। এর জন্য প্রয়োজন ইন্টারভিউ এর সঠিক কৌশল জানা।

    লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ চাকরির ইন্টারভিউ এর সঠিক কৌশল উপস্থাপনের জন্য।

    Reply
  261. লেখককে অনেক ধন্যবাদ এত সুন্দর এবং গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে লেখার জন্য।
    চাকরি মানেই ইন্টারভিউ আর ইন্টারভিউ মানেই অনেক বেশি টেনশন।
    তাই কিভাবে ইন্টারভিউ ভালোভাবে দেয়া যায় সেই বিষয়ে সাবলিল ভাবে এখানে তুলে ধরা হয়েছে।

    Reply
  262. মা শা আল্লাহ! খুবই উপকারী একটি বিষয়ে কন্টেন্ট টি লেখা হয়েছে।
    ইন শা আল্লাহ সবাই উপকার হবে এর দ্বারা

    Reply
  263. মা শা আল্লাহ, অনেক সুন্দর একটি কনটেন্ট। লেখাপড়া শেষ এ সবাই চায় চাকরি।
    আমাদের জীবন একটা কথাই বার বার মনের মধ্যে আসে করে ‘ আমি চাকরি করবো , কিন্তু চাকরি পাওয়া কি এতটাই সহজ।অনেকে বার বার চাকরি জন্য ইন্টারভিউ দিয়ে থাকে কিন্তু বার বার নিরাস হয়।ইন্টারভিউ ছাড়া চাকরি হয়না।ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। ইন্টারভিউ তে ভাল করার জন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়,তাহলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে যায়। উক্ত কনটেন্ট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
    লেখককে ধন্যবাদ এত সুন্দর একটি কনটেন্ট শেয়ার করার জন্য শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  264. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলোর উপর চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে নির্ভর করে। তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। ইন্টারভিউ তে ভাল করার জন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়,তাহলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে যায়।

    Reply
  265. নিজেদের জীবনধারণের জন্য আমাদের চাকরির খুব প্রয়োজন। আর এই চাকরি পাওয়ার প্রথম ধাপ হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ বোর্ডে আমাদের নিজের উপস্থাপন, বাচনভঙ্গি , মার্জিত বা ভদ্র আচরণ আমাদেরকে চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রগামী করে রাখবে। আমরা অনেকেই আছি বারবার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হচ্ছে না। এর মূল কারণ, আমাদের ইন্টারভিউ সম্পর্কে সঠিক কোন ধারণা না থাকা । বারবার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি না হওয়ার ফলে নিজেদের গায়ে বেকারত্বের সীলমোহর পড়ে যায়।আর একজন বেকারকে, পরিবার এবং সমাজে বোঝা রূপে দেখে। তাই আমাদের উচিত সমাজের বোঝা না হয়ে, চাকরি পাওয়ার জন্য, অবশ্যই ইন্টারভিউর টিপস এবং কৌশলগুলো জানা, যা এই আর্টিকেলটিতে খুব সুন্দর ভাবে বর্ণনা করা হয়েছে। এই আর্টিকেলটিতে বর্ণিত টিপসগুলো মেনে চললে ইন্টারভিউ বোর্ডে আমরা সফল হব, ইনশাআল্লাহ্।

    Reply
  266. চাকরি পাওয়ার প্রথম ধাপ ইন্টারভিউ। কিছু কৌশল জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেয়া সহজ হয় ও চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আর্টিকেল এবিষয়ে বেশ তথ‍্যবহুল ও উপকারী।

    Reply
  267. যেকোন চাকরি পাওয়ার জন্য ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়।তবে ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমনটা নয়।চাকরি পাওয়ার জন্য ইন্টারভিউ এর কিছু কৌশল রয়েছে।এই কৌশল সমূহ আয়ও করতে পারলে চাকরি পাবার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

    Reply
  268. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  269. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানা যাবে।লেখক কে ধন্যবাদ জানাই এত সুন্দর করে সহজ ভাষায় চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য সঠিক গাইড লাইন তুলে ধরার জন্য ।

    Reply
  270. চাকরি ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে অনেকেই হতাশ হয়ে যায় । সেক্ষেত্রে কনটেন্ট টিতে লেখা মাথায় রেখে এবং নিজেকে সুন্দর ভাবে প্রেজেন্টেশন করতে পারলে ইন্টারভিউ এর ভয় অনেকাংশে দূর হয়ে যাবে।

    Reply
  271. কন্টেন্ট টি পড়ে অনেক ভালো কিছু জানা হলো।চাকরি নামক সোনার নিজের করে নেওয়ার প্রথম শর্ত ই হলো ইন্টারভিউ বোর্ডে নিজের আত্মবিশ্বাস, একাগ্রতা, মার্জিত ব্যবহার,ফর্মাল ড্রেসআপ, নিজের শক্তিশালী ব্যক্তিত্ব কে সুন্দর, সহজ ও সাবলীলভাবে ফুটিয়ে তোলা।লেখক কে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন একটি আর্টিকেল আমাদের উপহার দেওয়ার জন্য।

    Reply
  272. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  273. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। চাকরির ইন্টারভিউ সময়ে প্রথমে ভালো প্রস্তুতি নিতে হবে। চাকরির ইন্টারভিউ এর প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে স্টাডি করতে হবে ।মনোযোগ সহকারে প্রশ্ন শুনতে হবে এবং স্পষ্ট ও সহজভাবে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করতে হবে ।আত্মবিশ্বাস নিয়ে প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে । হাসি-খুশি ও উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা করতে হবে । আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানা সম্ভব ।

    Reply
  274. যেকোনো চাকরির ক্ষেত্রেই আপনাকে অবশ্যই ভাইবা বোর্ডের মুখোমুখি হতে হবে ৷ ইন্টারভিউ থেকেই মূলত আপনি একজন যোগ্য প্রার্থী হিসেবে বাছাই হবেন ৷ চাকরির জন্য ইন্টারভিউ খুব গুরুত্বপূর্ণ। সাধারণত ইন্টারভিউ ছাড়া চাকরি হয় না। ইন্টারভিউর ক্ষেত্রে তিন ধরনের প্রস্তুতি দরকার। শারীরিক, মানসিক ও একাডেমিক। ইন্টারভিউতে যাওয়ার আগে আপনাকে অবশ্যই ইন্টারভিউ দেয়ার কৌশল গুলো জানা উচিত । যদি ইন্টারভিউ বোর্ডে যাওয়ার আগে কৌশল গুলো জানা থাকে তাহলে আপনার মনোবল ও আত্মবিশ্বাস অনেক বেড়ে যাবে । যার ফলে আপনি নার্ভাস ফিল করবেন না। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে ।

    Reply
    • চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল এই কনটেন্টি অত্যন্ত উপকারী যা আমার জানা প্রয়োজন ছিল। আমি এখান থেকে অনেক উপকৃত হয়েছি। আশা করি চাকরি ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলটি যারা পড়বে তারা ও উপকৃত হবে।

      Reply
  275. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    Reply
  276. বর্তমান বাজারে চাকরি পাওয়া খুবই প্রতিযোগিতামূলক বিষয়। ভালো চাকরি পেতে হলে চাকরির কৌশল সম্পর্কে সচেতন হয়ে ইন্টারভিউ দিতে যাওয়া উচিত।

    Reply
  277. চাকরিতে অংশগ্রহণের প্রথম ও গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হল ইন্টারভিউ। তবে শুধুমাত্র ইন্টারভিউতে অংশগ্রহণ চাকরিকে নিশ্চিত করতে পারেনা।চাকরির ইন্টারভিউয়ের প্রস্তুতিতে নিজেকে কার্যকরভাবে উপস্থাপন করতে এবং একটি শক্তিশালী অভিব‍্যক্তি তৈরি করা নিশ্চিত করার জন্য বেশ কয়েকটি মূল কৌশল জড়িত। এজন্য আমাদের উচিত চাকরির ইন্টারভিউ কৌশল সম্পর্কে জানা ও তা অনুসরণ করা।উক্ত কনটেন্টিতে লেখক চাকরি ইন্টারভিউ এর কৌশল সম্পর্কে ধাপে ধাপে খুব বিস্তৃতভাবে আলোচনা করেছেন। আর্টিকেলটির মাধ্যমে চাকুরী প্রার্থীগণ সহ সবাই চাকুরীর ইন্টারভিউ এর কৌশল ওঅনেক অজানা বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবেন। অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই লেখক কে এতো গুরুত্বপূর্ণ তথ্যবহুল কনটেন্ট আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  278. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। কারন চাকরি মানেই ইন্টারভিউ চাকরি করতে চাইলে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতেই হবে। চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ অনেক গুরুত্বপূর্ণ। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে যা অনেক সুন্দর করে ওপরের কন্টেনটিতে বোঝানো হয়েছে। কন্টেনটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন। ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো এতটা সুন্দর সাবলীল ও সহজ ভাষায় আমাদেরকে অবহিত করানোর জন্য লেখককে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  279. চাকরি পেতে হলে ইন্টারভিউ দিতে হবে।আর ইন্টারভিউ যদি ভালো না হয় তবে একাধিকবার চেষ্টা করেও চাকরি না পেয়ে হতাশ হতে হয়। তাই ইন্টারভিউ ভালো হওয়ার কতগুলা কৌশল অবলম্বন করতে হয়।যাতে আত্মবিশ্বাস নিয়ে বলা যায় চাকরি টা আমার হবে। সেজন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র,পূর্ব প্রস্তুতি,মাথা ঠান্ডা রাখা, আত্মবিশ্বাস, ভদ্র আচরণ, মার্জিত পোশাক ইত্যাদি সহ কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়।যা উল্লেখিত কন্টেন্ট এ প্রকাশ পেয়েছে।

    Reply
  280. যে কোন চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউতে অংশগ্রহণ আবশ্যক। আর চাকরি পেতে ইন্টারভিউতে অবশ্যই ভালো করতে হবে অন্যথায় চাকরি হবেনা। তাই ইন্টারভিউতে আশানুরূপ ফল পেতে কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হবে। এই পোস্টটিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সুন্দর ভাবে আলোচনা করা হয়েছে যেমন ইন্টারভিউ এর আগে, পরে, এবং ইন্টারভিউ এর সময়ে কি কি করা উচিৎ আর কি কি বলা বা করা উচিৎ নয়। তাই আশা করা যায় কন্টেন্টি চাকরি প্রত্যাশিদের জন্য উপকারী হবে।

    Reply
    • ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল জানা থাকলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় এবং হতাশা কমে; তাই চাকরিপ্রার্থীদের এসব কৌশল সম্পর্কে জ্ঞান থাকা জরুরি। ধন্যবাদ লেখককে চাকরি বিষয়ক মূল্যবান কন্টেন্টের জন্য।

      Reply
  281. প্রত্যেক চাকরি প্রার্থীকেই ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। ইন্টারভিউ এর মাধ্যমেই একটি প্রতিষ্ঠান তাদের প্রত্যাশিত কর্মীকে নির্বাচন করেন। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে তার কোন নিশ্চয়তা নেই, কিন্তু কোন প্রার্থী যদি চাকরি ইন্টারভিউ এর কৌশল সম্পর্কে অবগত থাকেন, তাহলে তার চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশ বেড়ে যায়। প্রত্যেক চাকরিপ্রার্থীর জন্যই এই আর্টিকেলটি খুবই কার্যকরী, কারণ আর্টিকেলটিতে অত্যন্ত চমৎকারভাবে চাকরি ইন্টারভিউ এর সকল কৌশল নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

    Reply
  282. প্রবন্ধটি পড়ার পর আমার মনে হলো এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং তথ্যবহুল। বিশেষ করে যারা চাকরির ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে বারবার ব্যর্থ হচ্ছেন, তাদের জন্য এটি একটি অত্যন্ত সহায়ক গাইডলাইন হতে পারে।

    যারা চাকরির ইন্টারভিউতে সফল হতে চান এবং তাদের ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী, তাদের জন্য এই প্রবন্ধটি অবশ্যই পাঠ করা উচিত। এটি তাদের ইন্টারভিউ প্রস্তুতির জন্য একটি সম্পূর্ণ গাইডলাইন সরবরাহ করে, যা তাদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে এবং চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করবে।

    Reply
  283. চাকরিতে অংশগ্রহণের প্রথম ও গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হল ইন্টারভিউ। তবে শুধুমাত্র ইন্টারভিউতে অংশগ্রহণ চাকরিকে নিশ্চিত করতে পারেনা।চাকরির ইন্টারভিউয়ের প্রস্তুতিতে নিজেকে কার্যকরভাবে উপস্থাপন করতে এবং একটি শক্তিশালী অভিব‍্যক্তি তৈরি করা নিশ্চিত করার জন্য বেশ কয়েকটি মূল কৌশল জড়িত। এজন্য আমাদের উচিত চাকরির ইন্টারভিউ কৌশল সম্পর্কে জানা ও তা অনুসরণ করা।যদি ইন্টারভিউ বোর্ডে যাওয়ার আগে কৌশল গুলো জানা থাকে তাহলে আপনার মনোবল ও আত্মবিশ্বাস অনেক বেড়ে যাবে । উক্ত কনটেন্টিতে লেখক চাকরি ইন্টারভিউ এর কৌশল সম্পর্কে ধাপে ধাপে খুব বিস্তৃতভাবে আলোচনা করেছেন। অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই লেখক কে এতো গুরুত্বপূর্ণ তথ্যবহুল কনটেন্ট আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য।

    Reply
  284. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।
    চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে ভালোভাবে প্রস্তুতি নেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বিভিন্ন প্র্যাকটিসের মাধ্যমে নিজের জরতাগুলো কাটিয়ে নেওয়া উচিত।
    আর্টিকেলটি পড়লে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন। লেখককে অনেক ধন্যবাদ, এইরকম পোস্ট দেওয়ার জন্য।

    Reply
  285. বর্তমান যুগে যেকোনো চাকরীর ক্ষেত্রে আমাদের প্রায় সময়ই ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। চাকরির জন্য ইন্টারভিউ খুব গুরুত্বপূর্ণ। চাকরির ইন্টারভিউয়ের প্রস্তুতিতে নিজেকে যোগ্য ও কার্যকরভাবে উপস্থাপন করতে বেশ কয়েকটি মূল কৌশল জড়িত। এসব কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় যা চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়িয়ে দেয়।
    এই আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরি প্রত্যাশীরা ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবে।

    Reply
  286. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। তাই আমাদের ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো সম্পর্কে জানা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।মা শা আল্লাহ, অনেক সুন্দর একটি কনটেন্ট।

    Reply
  287. ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।কনটেন্টে বর্ণিত কৌশল গুলো জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যাবে ইনশাআল্লাহ।

    Reply
  288. চাকরি জীবনের প্রথম ও শেষ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ।একটি সুষ্ঠু, সুন্দর ও মননশীল ইন্টারভিউ জীবনের বেকারত্ব দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এতো সুন্দর করে ইন্টারভিউ এর গুরুত্ব আমাদের মাঝে তুলে ধরার জন্য।

    Reply
  289. যেকোনো চাকরির ক্ষেত্রেই ইন্টারভিউ দেওয়া আবশ্যক। আর এই ইন্টারভিউ এর মাধ্যমেই প্রতিষ্ঠান নির্ধারণ করে কোনো প্রার্থী চাকরি পাবে কিনা।তাই দক্ষ ও সুন্দর ভাবে একটি ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য এই কৌশল গুলো জানা জরুরী।

    Reply
  290. চাকরির সাথে ইন্টারভিউ শব্দটি অতপ্রত ভাবে জড়িত। চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়া চাকরি হওয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। নতুন কোন চাকরিতে যোগদান করতে হলে অবশ্যই তার পূর্বে নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানে ইন্টারভিউ দিতে হয়। প্রতিষ্ঠানের ধরণ ও পদবী অনুযায়ী ইন্টারভিউতে প্রশ্ন করা হয়। ইন্টারভিউতে এমন কিছু প্রশ্ন করা হয় যেগুলোর মাধ্যমে আপনার নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হতে পারে। আপনি উত্তেজিত হয়ে যেতে পারেন। একটু স্থির ও কৌশলী হয়ে ইন্টারভিউতে প্রশ্ন উত্তর দিলে অনেকের থেকে এগিয়ে থাকা সম্ভব। নিজেকে কন্ট্রোল করে ঠান্ডা মাথায় চিন্তা-ভাবনা করে বুদ্ধিমত্তার সাথে উত্তর দিতে হবে।

    Reply
  291. মাঝে মাঝেই আমাদেরকে চাকরির জন্য ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয় এবং এটি হলো চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। আমরা অনেক স্বপ্ন, আশা, আকাঙ্খা নিয়ে ইন্টারভিউ দিতে যাই। মনে মনে ভেবে রাখি চাকরিটা হলে বিভিন্ন কিছু করব, মনের স্বপ্নগুলো পূরণ করব। কিন্তু দেখা যায় অনেকেই বারবার চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার পরও চাকরি হয় না, স্বপ্নগুলোর মৃত্যু হয়ে যায়। প্রতিটা ক্ষেত্রেই কিছু দিকনির্দেশনা ও কৌশল আছে, চাকরির ইন্টারভিউ এর ক্ষেত্রেও তেমনি কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয় যা মনোবল বাড়িয়ে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।
    চাকরি মানেই ইন্টারভিউ, আর ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে চাকরির ইন্টারভিউ এর জন্য যেসকল কৌশল অবলম্বন করতে হয় তা এই কন্টেন্টটিতে খুবই চমৎকারভাবে তুলে ধরা হয়েছে যা অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়, এবং এই বিষয়ের উপর ইন্টারভিউ এর কৌশল সম্পর্কে এত সুন্দরভাবে উপস্থাপন করার জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  292. সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ এর মুখোমুখি সবারই হতে হয়। কিছু অনেকে ভালো পরীক্ষা দিয়ে ও ভাইবা বোর্ডে কৌশলী না হওয়ার কারণে চাকরি থেকে বঞ্চিত হন। সেজন্য প্রয়োজন নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাসী, কৌশলী,কমন কিছু প্রশ্নের উত্তর জানা।এককথায়, নিজেকে যতবেশি পজিটিভভাবে উপস্থাপন করবেন ততই আপনার জন্য চাকরি পাওয়া সহজ হবে। এই কন্টেন্টটি পড়লে খুটিনাটি বিষয়গুলোগুলো সুন্দরভাবে বুঝতে পারবেন ইং-শা আল্লাহ।

    Reply
  293. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে।এত সুন্দরভাবে উপস্থাপন করার জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  294. চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। এই আর্টিকেল এ লেখক তা পুঙ্খানুপুঙ্খ বর্ণনা করেছেন। ধন্যবাদ লেখককে এত সুন্দর একটা উপযোগী আর্টিকেল উপহার দেওয়ার জন্য।

    Reply
  295. কনটেন্টি পড়ে আমার অনেক উপকৃত হয়েছে। ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় হাসি-খুশি ও উৎফুল্ল থাকার চেষ্টা করব।
    ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল সম্পর্কে জানতে পেরেছি। যে পদে চাকুরীর জন্য ইন্টারভিউ দিব সে অনুযায়ী প্রফেশনাল সিভি তৈরী করতে হবে।

    Reply
  296. মাশাআল্লাহ,
    খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি কনটেন্ট। চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল আমাদের প্রত্যেকেরই জানা উচিত। কারণ সরকারি / বেসরকারি, ছোট কিংবা বড় প্রায় সকল চাকরির জন্যই ইন্টারভিউ দিতে হয়। আর এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। কেননা তারা ইন্টারভিউ বোর্ডে যাওয়ার পূর্বে এবং পরে যে প্রস্তুতি নিতে হয় তার সঠিক কলাকৌশল সম্পর্কে জানে না। । আর এই কন্টেন্টটিতে লেখক চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে খুব সুন্দর গাইডলাইন দিয়েছেন। আমরা যদি লেখকের এই গাইডলাইনগুলো ফলো করতে পারি তবে কাঙ্খিত সাফল্য অর্জন করতে পারবো ইনশাআল্লাহ।

    Reply
  297. একটি সফল ইন্টারভিউ একজন চাকরিপ্রার্থীর জীবনের সফলতার জন্য অপরিহার্য। আর এই সফলতা পেতে হলে কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়। চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে জানা থাকলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।
    উক্ত আর্টিকেলটিতে সেই কৌশলগুলো সম্পর্কে সুন্দরভাবে বর্ণনা করা হয়েছে যা চাকরি প্রত্যাশীদের উপকারে আসবে।

    Reply
  298. পড়াশুনা শেষ হবার আগে থেকেই চাকরির প্রস্তুতি নেয়া শুরু করে এখনকার শিক্ষার্থীরা। বিষয় ভিত্তিক পড়াশুনা করে চাকরির পরীক্ষা দিয়ে পাশ করার চেয়ে চাকরীর ইন্টারভিউ অনেক বেশী গুরুত্বপুর্ণ। এই ইন্টারভিউটাতেই মুলত চাকরী পাওয়া না পাওয়া অনেকাংশে নির্ভরশীল। ইন্টার ভিউতে কিছু ট্রীকস ফলো করলে চাকরী পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যেতে পারে।
    এই কন্টেন্ট টিতে খুব দারুন ভাবে চাকরীর ইন্টারভিউতে কি ধরনের আচরন করা উচিত তা বলা হয়েছে। চাকরী প্রত্যাশীদের জন্য লেখাটি খুবই গুরূত্বপুর্ণ হবে। ধন্যবাদ লেখককে।

    Reply
  299. চাকরি প্রাপ্তির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ অত্যাবশক।
    একটি সঠিক উপস্থাপনা, বদলে দিতে পারে ভাগ্যের চাকা। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।
    লেখনীটিতে, সুন্দর করে সহজ ভাষায় চাকরি প্রত্যাশীদের জন্য সঠিক গাইড লাইন তুলে ধরা হয়েছে। চাকরি প্রত্যাশিদের জন্য লেখনিটি খুবই উপকারে আসবে।

    Reply
  300. চাকরির পাওয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ ।ইন্টারভিউ কেমন হবে তার ওপর নির্ভর করে চাকরি পাওয়া না পাওয়া। ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশল গুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। উক্ত আর্টিকেলটিতে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে ।যা একজন চাকরিপ্রার্থীর ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে ।

    Reply
  301. চাকরির জন্য আমাদেরকে মাঝে মাঝে ইন্টারভিউ সম্মুখীন হতে হয়। চাকরি মানে ইন্টারভিউ। আমরা যারা চাকরি নিতে চাই তাদের সবাইকে ইন্টারভিউ মাধ্যমে যাচাই করে যোগ্য লোককে চাকরি দেওয়া হয়। এমন অনেকে আছে যাদের বারবার ইন্টারভিউ দেওয়ার পরও চাকরি হয় না তাই কিভাবে ইন্টারভিউ দিলে চাকরি পাওয়া যাবে এ বিষয় সম্পর্কে এই কনটেন্ট টি লেখা হয়েছে।

    Reply
  302. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ বোর্ডে ব্যর্থতায় বাড়ছে বেকারত্ব।তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যেগুলোর উপর চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে নির্ভর করে। তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে কন্টেন্ট লেখার জন্য।

    Reply
  303. চাকরি জীবনের সবচেয়ে কঠিন ও গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো ইন্টারভিউ। এই ইন্টারভিউ তে অধিকাংশ লোক বাদ যায় শুধুমাত্র নিয়ম কানুন, আচরণ না জানার জন্য। ইন্টারভিউ দেওয়ার ও কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয়। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এতো গুরুত্বপূর্ণ একটি কন্টেন্ট লেখার জন্য।

    Reply
    • চাকরি পাওয়ার পূর্বে প্রায় সকলকে ইন্টারভিউ এর মুখোমুখি হতে হয়। চাকরি পাওয়া, না পাওয়া নির্ভর করে ইন্টারভিউ এর উপর। তাই চাকরির পূর্বের একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ এর প্রস্তুতি, করণীয় এবং বিভিন্ন কৌশল সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে এই কনটেন্ট এ।এগুলো অনুসরণ করলে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবে এবং চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যাবে।

      Reply
  304. ইন্টারভিউ শব্দটির সাথে আমরা সবাই পরিচিত।চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ ইন্টারভিউ। আমরা অনেক সময় ইন্টারভিউ দেওয়ার সময় বিষন্ন হয়ে যায় যার কারনে চাকরি হওয়ার থাকলে হয় না। এ সুন্দর করে বুঝিয়ে দিয়েছেন চাকরির ইন্টারভিউ সহজ কৌশল আর্টিকেলটিতে।

    Reply
  305. এই আর্টিকেল থেকে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে জানা আপনাকে ইন্টারভিউয়ারের সামনে আত্মবিশ্বাসী এবং সুস্থ প্রতিক্রিয়া সরবরাহ করতে সাহায্য করবে। আপনি সঠিক প্রস্তুতিতে এবং ব্যক্তিগত যোগ্যতা প্রদর্শন করতে সক্ষম হবেন, যা আপনার সফলতার সম্ভাবনা বৃদ্ধি করবে।

    Reply
  306. চাকরির জন্য মাঝে মাঝেই আমাদেরকে ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে। তাদের চরিত্রে বেকারের সীলমোহর লেগে যায়।
    চাকরি মানেই ইন্টারভিউ আর ইন্টারভিউ দিলেই যে আমাদের চাকরি হবে তার কোন নিশ্চয়তা নেই।
    তাই তো লেখক আমাদের এই আর্টিকেল এ কিছু কৌশল শিখিয়েছে যা অবলম্বন করলে আশা করি আমাদের চাকরি হবে ইংশাআল্লাহ। লেখক কে অনেক ধন্যবাদ।

    Reply
  307. অনেকদিন ধরেই চাকরির ইন্টারভিউ কিভাবে দিব এবং সেগুলোর কৌশল নিয়ে একটা আর্টিকেল খুজছিলাম। ভাগ্যিস এটা পেলাম এ আর্টিকেলটাতে খুবই ইজি ভাবে সবকিছু বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর্টিকেলটি পড়ে আমার খুবই উপকার হলো

    Reply
  308. ধন্যবাদ। অনেক উপকারী লেখা। আমরা যারা চাই ভালো একটা চাকুরী করতে, তাদের জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

    Reply
  309. চাকরি করতে গেলে আগে ইন্টারভিউর সম্মুখীন হতে হয়। খেয়াল করলে দেখা যায় এমন অনেকেই আছেন যারা চাকরির জন্য বার বার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি হয়না। একটা সময় তাদের জীবন খুবই দূর্বিসহ হয়ে পড়ে। তাদের চরিত্রে বেকারের সীলমোহর লেগে যায়। তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে যায়। ব্যক্তিত্ব বা মূল্যায়ন বলতে তাদের কিছুই থাকে না।

    চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে।
    ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত। ধন্যবাদ জানাই লেখক কে এত সুন্দর লেখনী উপহার দেয়ার জন্য।

    Reply
  310. চাকরি প্রার্থী কে অবশ্যই ইন্টারভিউ এর সম্মুখীন হতে হয় চাকরি পাবার পূর্বে । ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে যেগুলো অবলম্বন করলে চাকরি পাবার আশা অনেক আংশে বেড়ে যায় । এই
    লেখনীতে লেখক উক্ত বিষয় গুলো খুব সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছেন । আশা করছি একজন চাকরি প্রার্থীর জন্য এটি অনেক উপকারি হবে ।

    Reply
  311. ইন্টারভিউ এর উপর ভিত্তি করে চাকরি হওয়া না হওয়া নির্ভর করে।তবে ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। কিন্তু উক্ত কন্টেন্টের কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।বর্তমানে কম বেশি প্রতিটি চাকরির জন্য ভালো সার্টিফিকেট থাকার পাশাপাশি ইন্টারভিউ দিতে হয়।

    Reply
  312. লেখককে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ।আমরা সত্যিই ইন্টারভিউ বোর্ডে গিয়ে এই সমস্যাগুলো সবাই ফেচ করে থাকি। আশা করি এই কনটেন্টিতে লেখাগুলো অনুস্মরন করলে আমরা সবাই উপকৃত হবো।

    Reply
  313. চাকরি জীবনের প্রথম এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ইন্টারভিউ।চাকরির জন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু সুন্দর কৌশল আছে ,যেগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ দেওয়াটা অনেক সহজ এবং সাবলীল হয় ।আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়।লেখককে অসংখ্যক ধন্যবাদ এমন উপকারি কনটেন্ট তুলে ধরার জন্য

    Reply
  314. ✍️✍️ বর্তমানে কম বেশি প্রতিটি চাকরির জন্য ভালো সার্টিফিকেট থাকার পাশাপাশি ইন্টারভিউ দিতে হয়। 👌👌আর ইন্টারভিউ টা ভালো হলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়েই যায়। 😍 ইন্টারভিউ তে ভাল করার জন্য কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হয়,তাহলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা বেড়ে যায়। 🤞🖕 তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। এখানে সেই কৌশলগুলি বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরার জন্য লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

    Reply
  315. যে কোন চাকরি পাওয়ার প্রথম ধাপে হচ্ছে একটি ভালো ইন্টারভিউ। তাই ইন্টারভিউ দেওয়ার যে কৌশল ও পদ্ধতি আছে তাজানা প্রয়োজন। আর এই কনটেন্টি থেকে সহজেই ইন্টারভিউ সম্পর্কে ধারণা লাভ করা যাবে।

    Reply
  316. একটি চাকরি পাওয়ার জন্য ইন্টারভিউ অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ। আর্টিকেল টিতে চাকরির জন্য ভালো ভাবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল অনেক সুন্দর ভাবে দেওয়া হয়েছে । লেখক কে অনেক ধন্যবাদ এতো সুন্দর একটি কন্টেন্ট আমাদের মাঝে শেয়ার করার জন্য। জাজাকাল্লাহু খয়রন 🤲

    Reply
  317. চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।তবে এক্ষেত্রে প্রার্থীর প্রয়োজনীয় জ্ঞান, কৌশল অবলম্বন ও পূর্বপ্রস্তুতির দরকার।নারীরা ঘর সামলিয়ে চাকরির চেষ্টা করতে চাইলে দেখা যায় তাদের মধ্যে এসবের অভাব থাকে,ঘাবড়ে যান।আশা করছি তাদের এই কনটেন্টের মাধ্যমে ইন্টারভিউ সম্পর্কে ধারণা,কৌশল অবলম্বন, পূবপ্রস্তুতি নেয়া সহজ হবে।

    Reply
  318. চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ খুব গুরুত্বপূর্ণ।
    তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। কনটেন্টিতে ইন্টারভিউ এর কৌশল গুলো আলোচনা করা হয়েছে।

    Reply
  319. চাকরি সাথে ইন্টারভিউ থাকবেই। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।

    আর্টিকেলটি ভালভাবে পড়লে আশা করছি চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারবেন।

    Reply
  320. চাকুরী পেতে বার বার ব্যর্থ হওয়ার পিছনে অন্যতম কারণ হলো ইন্টার্ভিউতে অপরিপক্বতা। ইন্টার্ভিউতে বিনয়ী হতে হবে যথাসম্ভব। আর ইন্টার্ভিউ মানেই উপস্থিত বুদ্ধিবল কাজে লাগানো কতিপয় কৌশল ব্যবহারের মাধ্যমে যেটা এই আর্টিকেলে সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

    Reply
  321. বর্তমান সময়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হলো চাকরি। আর চাকরি মানেই ইন্টারভিউ। চাকুরী পেতে বার বার ব্যর্থ হওয়ার পিছনে অন্যতম কারণ হলো ইন্টারভিউতে অপরিপক্বতা। ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই।তবে ইন্টারভিউ দেওয়ার সঠিক কৌশল না জানা থাকার কারণেও অনেকের চাকরি হয় না!
    উক্ত আর্টিকেলে লেখক ইন্টারভিউর কৌশল গুলো খুব চমৎকার ভাবে বর্ণনা করেছেন; যা বর্তমানে চাকরি প্রার্থীর জন্য খুবই প্রয়োজন।

    Reply
  322. চাকুরী পেতে হলে সর্বপ্রথম ধাপ আবেদন করা, তারপর ইন্টারভিউ ফেস করা।চাকরি প্রাপ্তির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ অত্যাবশক।ইন্টারভিউ বোর্ডে ব্যর্থতায় বাড়ছে বেকারত্ব।ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল রয়েছে। যে কৌশলগুলো অনুসরণ করলে চাকরি হওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়। এজন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার পূর্বে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল সম্পর্কে সকলের জানা উচিত।কনটেন্টে বর্ণিত কৌশল গুলো জানা থাকলে চাকরির ইন্টারভিউতে ভালো ফলাফল আশা করা যাবে ইনশাআল্লাহ।লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এতো গুরুত্বপূর্ণ একটি কন্টেন্ট লেখার জন্য।

    Reply
  323. চাকরি জীবনের প্রথম ধাপ হলো ইন্টারভিউ।চাকরির ক্ষেত্রে ইন্টারভিউ আবশ্যক। ইন্টারভিউ এর সঠিক কৌশল গুলো ব্যবহার করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়।

    Reply
  324. চাকুরীর ক্ষেত্রে প্রার্থী নির্বাচনের একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ দ্বারা চাকরি প্রত্যাশীর ব্যক্তিত্ব ও অভিজ্ঞতা এবং প্রার্থীর যোগ্যতা মূল্যায়ন করা হয় । অনেক সময় একাধিক ইন্টারভিউ দিয়েও কাঙ্ক্ষিত চাকরি পাওয়া সম্ভব হয় না । ইন্টারভিউ এর ক্ষেত্রে কিছু কৌশল অবলম্বন করলে ইন্টারভিউ গ্রহীতার নিকট চাকরি প্রার্থীর গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি পায় । উক্ত কনটেন্টিতে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল আলোচনা করা হয়েছে যা অনুসরণ করলে চাকুরীর সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়

    Reply
  325. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল জানাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এটি চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনাকে অনেকাংশে বাড়িয়ে দিতে পারে। অনেকেই বারবার ইন্টারভিউ দিয়ে চাকরি পান না, ফলে তাদের জীবন দূর্বিসহ হয়ে ওঠে এবং তারা পরিবার ও সমাজের বোঝা হয়ে পড়ে। ব্যক্তিত্ব বা মূল্যায়নের অভাবে তারা হতাশায় ভোগেন। ইন্টারভিউ দিলেই চাকরি হবে, এমন নিশ্চয়তা নেই, তবে কিছু কৌশল অনুসরণ করলে চাকরি পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। এই আর্টিকেলটি পড়ে ইন্টারভিউয়ের কৌশল সম্পর্কে অনেক অজানা বিষয় জানতে পারলাম, যা ভবিষ্যতে ইন্টারভিউয়ের প্রস্তুতিতে সহায়ক হবে।

    Reply
  326. পড়ালেখা শেষ করে প্রায় সবাই চাকরির চেষ্টা করে। কিন্তু চাকরির চেষ্টা করার পরেও অনেকের চাকরি হয়না। বার বার ইন্টারভিউ দেওয়ার পরেও দেশে বেকারত্বরে হার দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে। চাকরির প্রথম ও প্রধান ধাপ হলো ইন্টারভিউ দেওয়া। অনেক ভালো ভালো ছাত্র-ছাত্রী ইন্টারভিউ দেয় কিন্তু সবারই চাকরি হয়না। কেননা চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল বা পদ্ধতি রয়েছে যা সবাই জানেনা। আর ইন্টারভিউ দেওয়ার অজানা সমস্ত কৌশল নিয়ে এই কনটেন্টটি লিখা। লেখকে অসংখ্য ধন্যবাদ সময়োপযোগী এত গুরুত্বপূর্ণ একটি কনটেন্ট লেখার জন্য। কনটেন্টটি পড়ার ফলে অনেকে ইন্টারভিউ দেওয়ার বিষয়ে অনেক কিছু জানতে পারবে।

    Reply
  327. চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশল হলো এমন কিছু কৌশল ও প্রস্তুতি যেগুলো আপনাকে ইন্টারভিউতে সফল হতে সাহায্য করে। ইন্টারভিউতে নিজেকে আত্মবিশ্বাসী ও প্রস্তুত হিসাবে উপস্থাপন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এর মধ্যে থাকে, পদের জন্য প্রয়োজনীয় দক্ষতা ও যোগ্যতার সাথে নিজের অভিজ্ঞতা ও সক্ষমতাকে মিলিয়ে তোলা, সম্ভাব্য প্রশ্নের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ, প্রফেশনাল পোশাক পরিধান, এবং ভালো বডি ল্যাঙ্গুয়েজ বজায় রাখা। এছাড়াও, ইন্টারভিউয়ারদের সাথে সুসম্পর্ক স্থাপন এবং কোম্পানির সম্পর্কে ভালভাবে জেনে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। এই কৌশলগুলো অনুসরণ করলে ইন্টারভিউতে সফল হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায়।

    Reply
  328. চাকরি হতে হলে ইন্টারভিউ এ অংশগ্রহণ করা হল প্রথম ধাপ, এক্ষেত্রে ইন্টারভিউ দিলেই যে চাকরি হবে এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। এই আর্টিকেলটিতে চাকরির জন্য ইন্টারভিউ দেওয়ার কৌশলগুলো সুন্দরভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে যা সকলের জানা উচিত, লেখককে ধন্যবাদ।

    Reply
  329. যেকোনো চাকরিতে জয়েন করার প্রথম ধাপ হলো ইন্টারভিউ। ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে একজন প্রার্থীর যোগ্যতা যাচাই করা হয়। ইন্টারভিউ যদি সঠিক নিয়ম বা কৌশলে দেওয়া যায়, তাহলে চাকরি কনফার্মেশনের নিশ্চয়তা কয়েকগুন বেড়ে যায়।

    Reply
  330. চাকরি করতে গেলে আগে ইন্টারভিউর ফেস করতেই হবে। কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় বারবার ইন্টারভিউ দিয়েও চাকরি পাওয়া যায় না। কারণ ইন্টারভিউ দেওয়ার ক্ষেত্রে কিছু কৌশল অবলম্বন করা উচিত এটা অনেকেরই জানা থাকে না। উক্ত কন্টেন্টটিতে চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার কিছু কৌশল তুলে ধরা হয়েছে। যে কৌশলগুলো অবলম্বন করলে প্রশ্নকারীরা আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। কৌশলগুলো জানা থাকলে ইন্টারভিউ বোর্ডে আপনার আত্মবিশ্বাস, মনোবল অনেক বেড়ে যাবে। যা আপনাকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে ইন শা আল্লাহ।

    Reply

Leave a Comment