অর্থনৈতিক ধসের সময় কিভাবে সঞ্চয় করবেন?

অর্থনৈতিক ধস হল এমন একটি সময় যখন অর্থনীতি ধীরে ধীরে বা দ্রুত হ্রাস পায়। এটি চাকরির হার বৃদ্ধি, ব্যবসায়িক ব্যর্থতা এবং আয়ের হ্রাসের দিকে পরিচালিত করতে পারে। অর্থনৈতিক ধসের সময় সঞ্চয় করা গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এটি আপনাকে আর্থিক খারাপ পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিকভাবে স্থিতিশীল থাকতে সাহায্য করতে পারে। যেমন চাকরির ক্ষতি বা অসুস্থতা। একটি নতুন বাড়ি কেনা বা অবসর গ্রহণে আরামদায়ক জীবনযাপন করা।

মোট কথা, সঞ্চিত অর্থ আপনার জীবনকে নিরাপদ ও চিন্তামুক্ত রাখবে। আমরা আপনাদের সাথে শেয়ার করবো কিভাবে আপনি অর্থনৈতিক ধসের সময়ে সঠিক পরিকল্পনা বানানো, বাজেট তৈরি করা, এবং স্বাস্থ্যকর সঞ্চয় পরিকল্পনা তৈরি করতে পারেন। 

আপনার মাসিক খরচ তালিকা তৈরি করুন।

একটি মাসিক খরচ তালিকা তৈরি করা অর্থনৈতিক ব্যবস্থাপনার একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। এটি আপনাকে আপনার আয় এবং খরচের মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখতে এবং আপনার অর্থনৈতিক লক্ষ্যগুলি অর্জন করতে সহায়তা করতে পারে।

মাসিক খরচ তালিকা তৈরি করতে, আপনি  নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে পারেন:

1.আপনার আয় এবং খরচের একটি তালিকা তৈরি করুন। আপনার আয়ের উৎসগুলি এবং আপনার ব্যয়ের বিভিন্ন বিভাগগুলি চিহ্নিত করুন।

2.প্রতিটি খরচের বিভাগের জন্য একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ বরাদ্দ করুন। আপনার আয়ের উপর ভিত্তি করে এই পরিমাণটি নির্ধারণ করুন।

3.আপনার খরচের উপর নজর রাখুন। আপনার মাসিক খরচ তালিকার সাথে আপনার আসল খরচের তুলনা করুন।

এখানে মাসিক খরচ তালিকার একটি উদাহরণ দেওয়া হল:

খরচের বিভাগপরিমাণ
বাড়ি ভাড়া5,000 টাকা
খাবার10,000 টাকা
বিদ্যুৎ ও গ্যাস1,000 টাকা
পানি500 টাকা
মোবাইল ফোন500 টাকা
ইন্টারনেট500 টাকা
পরিবহন1,000 টাকা
স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা1,500 টাকা
অন্যান্য1,000 টাকা
মোট টাকা২৪৫০০

এই তালিকাটি একটি সাধারণ তালিকা এবং আপনার ব্যক্তিগত খরচের উপর নির্ভর করে এটি পরিবর্তিত হতে পারে।

আপনার খরচ কমিয়ে দিন

খরচ কমানো একটি চ্যালেঞ্জিং কাজ, তবে এটি একটি উত্তম আর্থিক পরিস্থিতি তৈরি করতে সাহায্য করতে পারে। আমরা সবাই বাজেটের মধ্যে থাকা এবং আমাদের প্রয়োজনীয়তা মেটাতে চেষ্টা করি। অতএব, আপনার খরচগুলি কোথাও সংকোচ করতে বিশেষভাবে অবলম্বন করা এবং উপযুক্ত খরচ প্রদান করা গুরুত্বপূর্ণ।

অতিরিক্ত কাজ করুন।

অর্থনৈতিক ধসের সময়  সঞ্চয় করতে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হল অতিরিক্ত কাজ করা। অতিরিক্ত কাজ আপনাকে আপনার আয় বাড়াতে এবং আপনার সঞ্চয়ের স্তর দ্রুত বাড়াতে সাহায্য করতে পারে। আপনি আপনার বর্তমান চাকরিতে অতিরিক্ত সময় কাজ করতে পারেন, বা আপনি পার্ট-টাইম চাকরি বা Freelancing করে আয় করতে  পারেন। আপনি চাইলে হালাল রিযিকের খোঁজে, ETDP ট্রেনিং প্রোগ্রাম  থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আয়করি,কম সাইটের মাধ্যমে আয় করতে পারেন।

একাধিক উৎস থেকে আয় করুন।

একটি নতুন গবেষণায় দেখা গেছে, সেলফ-মেইড কোটিপতিদের সবারই আয়ের একাধিক উৎস রয়েছে। গবেষণায় দেখা গেছে, ৬৫ শতাংশ ধনীর আয়ের উৎস ছিল ৩টি, ৪৫ শতাংশ ধনী ৪টি উৎস থেকে আয় করেছেন আর ২৯ শতাংশ ধনী ৫টি বা এর বেশি উৎস থেকে আয় করেছেন।

গবেষণায় বলা হয়েছে, “আপনি জীবনে যত বেশি আয়ের প্রবাহ তৈরি করতে পারবেন, আপনার আর্থিক জীবন তত বেশি সুরক্ষিত হবে।” একক আয়ের উৎস গুলির উপর নির্ভর করার ফলে আপনি অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের ঝুঁকিতে থাকেন। যদি আপনার চাকরি হারিয়ে যায় বা আপনার ব্যবসা বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে আপনার আয়ের উৎসগুলি হারিয়ে যাবে।

কমেডিয়ান জে লেনো, যিনি প্রায় ৪০০ মিলিয়ন ডলারের মালিক বলে অনুমান করা হয়, তারও আয়ের দুইটি উৎস রয়েছে। তিনি বলেন, “একটি আমি সঞ্চয় করি, আরেকটি খরচ করি।” লেনো তার আয়ের একটি অংশ সঞ্চয় করে ভবিষ্যতের জন্য নিরাপত্তা তৈরি করেন। তিনি তার আয়ের অন্য অংশ খরচ করেন, যা তাকে তার জীবন উপভোগ করতে দেয়।

আপনার ঋণ পরিশোধ করুন।

বর্তমানে বেশির ভাগ মানুষ প্রচুর অর্থ ঋণ করে থাকে। ঋণ করাটা এখন সাধারণ জীবনের একটি অংশ হয়ে গেছে । অর্থনৈতিক ধসের সময়, আপনার আয় এবং সম্পদের উপর চাপ পড়বে। এই চাপগুলি মোকাবেলা করার জন্য, আপনার একটি শক্তিশালী আর্থিক ভিত্তি থাকা গুরুত্বপূর্ণ।

ঋণ আপনাকে প্রতি মাসে অতিরিক্ত অর্থ প্রদান করতে বাধ্য করে, যা আপনার সঞ্চয় করার ক্ষমতাকে হ্রাস করতে পারে। এছাড়াও, ঋণের সুদ আপনাকে আরও বেশি অর্থ ব্যয় করতে বাধ্য করতে পারে। 

আপনার ঋণ পরিশোধ করতে, ঋণের একটি তালিকা তৈরি করুন। এটি আপনাকে আপনার ঋণগুলিকে পরিচালনা করতে এবং আপনার লক্ষ্যগুলি নির্ধারণ করতে সহায়তা করবে।

হিসাব রাখতে হবে প্রতিদিন।

সঞ্চয় করতে হলে আমাদের প্রথমেই আমাদের খরচের হিসাব জানা দরকার। আমরা যখন আমাদের প্রতিদিনের খরচের হিসাব রাখি, তখন আমরা বুঝতে পারি যে আমরা আমাদের টাকা কীভাবে ব্যয় করছি। এটি আমাদের অপ্রয়োজনীয় খরচগুলি কমাতে এবং আমাদের সঞ্চয়ের জন্য আরও বেশি অর্থ বরাদ্দ করতে সাহায্য করতে পারে।

হিসাব রাখার জন্য আমরা একটি বাজেট বই, একটি অ্যাপ, বা একটি অনলাইন সরঞ্জাম ব্যবহার করতে পারি। আমরা প্রতিদিনের খরচের তালিকা তৈরি করতে পারি, বা আমরা একটি ক্যাশ ফ্লো স্টেটমেন্ট তৈরি করতে পারি।

আপনার লক্ষ্য নির্ধারণ করুন।

সঞ্চয় করা একটি গুরুত্বপূর্ণ আর্থিক লক্ষ্য। সঞ্চয়ের মাধ্যমে আমাদের জরুরী তহবিল গড়ে তুলতে পারি, অবসরকালের জন্য প্রস্তুত হতে পারি, বা আমাদের স্বপ্ন পূরণের জন্য অর্থ সঞ্চয় করতে পারি।

জরুরী তহবিল: জরুরী তহবিল হল এমন অর্থ যা আমরা অপ্রত্যাশিত খরচের জন্য সংরক্ষণ করি, যেমন একটি গাড়ি বিকল হওয়া বা একটি চাকরি হারানো। জরুরী তহবিল থাকা আমাদের আর্থিক নিরাপত্তা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

অবসর: অবসরকালের জন্য সঞ্চয় করা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অবসরকালে আমাদের আয় কমে যায়, তাই আমাদের অবসরকালের জন্য অর্থ সঞ্চয় করা প্রয়োজন। অবসরকালের জন্য সঞ্চয় করলে আমরা আমাদের অবসরকালে আরামদায়ক জীবনযাপন করতে পারি।

সফল মানুষদের  সঙ্গে বন্ধুত্ব রাখুন।

বিজনেস ইনসাইডারের কলামে, Steve Siebold  দাবি করেন যে আপনার ঘনিষ্ঠ বন্ধু কারা তার ওপর আপনার অর্থের পরিমাণ নির্ভর করে। তিনি বলেন, “আপনার চেয়েও সফল, এমন মানুষদের সঙ্গে সম্পর্ক রাখুন। তারা আপনার চিন্তাধারা বদলে দিতে ভূমিকা রাখবেন। আপনার আয়ের ওপর যার ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।”

সাইবোল্ডের এই দাবিটির বেশ কয়েকটি কারণ রয়েছে। প্রথমত, সফল মানুষরা সাধারণত সফল হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় দক্ষতা এবং জ্ঞান অর্জনে সক্ষম হয়। তাদের সঙ্গে সময় কাটালে, আপনিও এই দক্ষতা এবং জ্ঞান অর্জন করতে শিখতে পারেন।

দ্বিতীয়ত, সফল মানুষরা সাধারণত ইতিবাচক চিন্তাভাবনা করে এবং তাদের লক্ষ্যগুলি অর্জনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়। তাদের সঙ্গে সময় কাটালে, আপনিও এই ইতিবাচক চিন্তাভাবনা এবং প্রতিশ্রুতিবদ্ধতা অর্জন করতে শিখতে পারেন।

তৃতীয়ত, সফল মানুষরা সাধারণত তাদের নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সুযোগগুলি খুঁজে পায়। তাদের সঙ্গে সময় কাটালে, আপনিও তাদের নেটওয়ার্কের সুবিধাগুলি উপভোগ করতে পারেন।

শেষ কথা,

আমার এই লেখায় আমি আলোচনা করার চেষ্টা করেছি সঞ্চয় কি, সঞ্চয় ও বিনিয়োগের মধ্যে  পার্থক্য কি- এই বিষয়গুলো। শেষে আমি যুক্ত করে দিয়েছি টাকা সঞ্চয় করার উপায় সম্পর্কে কয়েকটি টিপস “তবে কথা হলো, টাকা জমাতে হলে তো আগে সেটা উপার্জন করতে হবে! তাই হালাল রিযিকের খোঁজে ট্রেনিং সেন্টার থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে আয়করি,কম থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

Leave a Comment